এই নির্বাচনকে অংশগ্রহণমূলক বলা যায় না: মাহবুব তালুকদার

নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার স্বীকার করেছেন, পৌরসভা নির্বাচনে সহিংসতা ক্রমাগত বেড়ে চলছে।

তিনি বলেছেন, নির্বাচন প্রক্রিয়ার পরিবর্তন না হলে এই সহিংসতা বন্ধ করা সম্ভব নয়।

সহিংসতার ঘটনায় নির্বাচন কমিশন এককভাবে দায়ী নয় বলে মনে করেন তিনি।

মাহবুব তালুকদার বলেন, তবে নির্বাচন কমিশন এ দায় এড়াতে পারে না।

শনিবার সাভার পৌরসভার তিন ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন শেষে নির্বাচন কমিশনে ফিরে তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। পরিদর্শনের সময়ে বিরোধী দলের প্রার্থীর পোস্টার দেখতে পাননি বলেও জানান তিনি।

মাহবুব তালুকদার বলেন, আমি সাভার পৌরসভার তিনটি ভোটকেন্দ্রের ১৮টি বুথ পরিদর্শন করেছি। শনিবার দুপুর ১টা পর্যন্ত ওই সব ভোটকেন্দ্রে ৭ হাজার ৩১১ জন ভোটারের মধ্যে ১ হাজার ২৩২ জন ভোট দিয়েছেন। ৩টি বুথে আমি ৩ জন বিরোধী দলীয় প্রার্থীর পোলিং এজেন্ট দেখতে পাই। কিন্তু অন্য কোথাও এজেন্ট ছিলেন না। এছাড়া সাভার পৌর এলাকায় আমি বিরোধী দলীয় প্রার্থীর কোনো পোস্টার দেখতে পাইনি। এ অবস্থায় এই নির্বাচনকে অংশগ্রহণমূলক বলা যায় না। যে কোনো নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক না হলে তা সিদ্ধ হয় না।

নির্বাচন প্রক্রিয়া পরিবর্তনে সবার ঐক্যমত প্রয়োজন জানিয়ে তিনি বলেন, পৌরসভার নির্বাচনে ক্রমাগত সহিংসতা বেড়ে চলেছে। সহিংসতা ও নির্বাচন একসঙ্গে চলতে পারে না। নির্বাচন প্রক্রিয়ার পরিবর্তন না হলে এই সহিংসতা বন্ধ করা সম্ভব নয়। এ বিষয়ে সবার ঐকমত্য আবশ্যক।

যে কোনো নির্বাচনের চেয়ে মানুষের জীবন অনেক বেশি মূল্যবান বলেও উল্লেখ করেন ইসি মাহবুব।

শনিবার দ্বিতীয় ধাপে ৬০টি পৌরসভায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ২৯টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ও ৩১টিতে ব্যালট পেপারে ভোট নেয়া হয়। সাভার পৌরসভায় ইভিএমে ভোটগ্রহণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *