‘আজারবাইজানে ৪ হাজার সেনা পাঠিয়েছে তুরস্ক’

বিচ্ছিন্ন নাগরনো-কারাবাখ অঞ্চলে বাকুর হয়ে আর্মেনিয়ার বিপক্ষে লড়াইয়ের জন্য উত্তর সিরিয়ার থেকে ৪ হাজার যোদ্ধাকে আজারবাইজানে পাঠিয়েছে তুরস্ক।

সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ইন্টারফেক্স নিউজ এজেন্সির কাছে এমনটা দাবি করেছে রাশিয়ায় নিযুক্ত আর্মেনিয়ার রাষ্ট্রদূত।

আর্মেনিয়ার রাষ্ট্রদূত জানান, নাগরনো-কারাবাখের যুদ্ধে অংশ নিয়েছে যোদ্ধারা। অঞ্চলটি আজারবাইনের। কিন্তু আর্মেনিয়ার সহায়তায় দখল করে আছে আর্মেনিয়ো আদিবাসীরা।

দীর্ঘদিন ধরে আজারবাইজান-আর্মেনিয়ার মধ্যকার সংঘাত পর্যবেক্ষণকারী আল জাজিরার রবিন ফরস্টিয়ার-ওয়াকার বলেন, বিচ্ছিন্ন নাগরনো-কারাবাখের তথাকথিত লাইন অব কনটাক্টে সংঘাত অব্যাহত হয়েছে।

‘লড়াইয়ে গোলাবারুদ, রকেট এবং ড্রোন মোতায়েন করেছে দু’পক্ষ। জর্জিয়ার তিবিলিস থেকে জানান ওয়াকার। বলেন,
রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) আমের্নিয়ার প্রকাশ করা একটি ভিডিওতে আজারবাইজানের একটি ট্যাংক ধ্বংস হতে দেখেছি আমরা। সুতরাং আমরা বলতে অসংখ্য ভারী যুদ্ধাস্ত্র ব্যবহার হচ্ছে দু’পক্ষের লড়াইয়ে ‘

নাগরনো কারাবাখে ছড়িয়ে পড়া লড়াইয়ে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন মার্কিন ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেন। দ্রুত সংঘাত বন্ধ, যুদ্ধবিরতি পুন:স্থাপন এবং আর্মেনিয়া-আজারবাইজানের মধ্যে পুনরায় আলোচনা শুরুর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এক বিবৃতিতে ট্রাম্প প্রশাসনকে শান্তিপূর্ণ সমাধানের লক্ষ্যে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা ত্বরান্বিত এবং রাশিয়ার প্রতি উভয় পক্ষকে অস্ত্র সরবরাহ বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন সাবেক এ ভাইস প্রেসিডেন্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *