মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪

শহীদ আবরার হত্যা মামলা: আসামিদের আদালত পরিবর্তনের আবেদন খারিজ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র শহীদ আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় বিচারিক আদালত পরিবর্তন চেয়ে আসামিদের আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করেছেন হাইকোর্ট।

সোমবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি শাহেদ নুরউদ্দিনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আবরার হত্যার মামলার বিচারিক আদালত পরিবর্তন চেয়ে আসামিদের আবেদন উত্থাপন হয়নি মর্মে খারিজ করেছেন হাইকোর্ট। আসামিরা যে যুক্তিতে আবেদন করেছেন, তা গ্রহণযোগ্য নয়। পরে আদালত তা খারিজ করেন।’

রাষ্ট্রপক্ষের শুনানিতে অংশ নেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন, ডেপুটি আ্যাটনি জেনারেল আব্দুল্লাহ আল বাশার। আসামিপক্ষের আইনজীবী হলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরী ও শফিকুল ইসলাম রিপন।

গত সপ্তাহে আদালত পরিবর্তন করার আবেদন করেন আসামিরা। পরে আজ শুনানির দিন ধার্য করেন আদালত।

বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার বিচার চলছে ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১-এ। মামলার ৬০ জন সাক্ষীর মধ্যে ৪০ জনের সাক্ষ্য নেওয়া শেষ হয়েছে। ৩ ডিসেম্বর আসামিপক্ষ থেকে লিখিতভাবে ওই আদালতের প্রতি অনাস্থা জানানো হয়।

এ ব্যাপারে বিচারিক আদালতে মামলা পরিচালনাকারী সরকারি কৌঁসুলি আবু আবদুল্লাহ ভূঁইয়া বলেন, মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ কার্যক্রম শেষ পর্যায়ে। এমন অবস্থায় বিচার বিলম্বিত করার জন্য আসামিপক্ষ থেকে নানাভাবে চেষ্টা করা হচ্ছে।

আসামিপক্ষের আইনজীবী আমিনুল গনি বলেন, আসামিপক্ষকে না জানিয়ে একজন সাক্ষীর পুনরায় সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে, যা আইনের পরিপন্থি।

গত বছরের ৬ অক্টোবর দিবাগত রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হল থেকে তড়িৎ ও ইলেকট্রনিকস প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে হত্যা করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় করা মামলায় গত বছরের ১৩ নভেম্বর বুয়েটের ২৫ ছাত্রের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। গত ২১ জানুয়ারি অভিযোগপত্রটি আমলে নেন আদালত। গত ২ সেপ্টেম্বর বুয়েটের ২৫ ছাত্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। মামলার অভিযোগপত্রভুক্ত তিন আসামি পলাতক।

spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_img
spot_img