বুধবার, জুন ১৯, ২০২৪

প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মৃত্যু; জরুরি বৈঠক ডেকেছে ইরানের মন্ত্রিসভা

প্রেসিডেন্ট ইবরাহিম রাইসি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির-আব্দুল্লাহিয়ানের মৃত্যুর আনুষ্ঠানিক ঘোষণার পর ইরানের মন্ত্রিসভা জরুরি বৈঠক ডেকেছে। এক প্রতিবেদনে এমনটি জানিয়েছে দেশটির বার্তাসংস্থা ইরনা ইন্টারন্যাশন্যাল।

এর আগে ইরানের আধা-সরকারি বার্তা সংস্থা মেহর নিউজের খবরে বলা হয়, ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট ইবরাহিম রাইসি দেশটির জনগণের জন্য তাঁর দায়িত্ব পালন করার সময় একটি দুর্ঘটনার শিকার হন। তিনি শহীদ হয়েছেন।

সোমবার (২০ মে) নিজেদের লাইভ আপডেটে এই তথ্য জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন।

ইরানের অন্যান্য সংবাদমাধ্যমও একই খবর দিয়েছে। ইরানের এক কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, রাইসিকে বহনকারী বিধ্বস্ত হেলিকপ্টারটি পুরোপুরি পুড়ে গেছে।

ওই হেলিকপ্টারে প্রেসিডেন্ট রাইসি ছাড়াও পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান, পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশের গভর্নর মালেক রাহমাতি এবং এই প্রদেশে ইরানের সর্বোচ্চ নেতার মুখপাত্র আয়াতুল্লাহ মোহাম্মদ আলী আলে-হাশেম ছিলেন। আজারবাইজানে একটি জলাধার প্রকল্প উদ্বোধনের পর পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশের রাজধানী তাবরিজে ফিরছিলেন তারা।

সিএনএন বলছে, দেশটির রাষ্ট্রীয় এই সংবাদ সংস্থার শেয়ার করা একটি ছবি অনুসারে, রাইসি সাধারণত যে চেয়ারটিতে বসেন সেটি খালি ছিল এবং নিহত এই প্রেসিডেন্টের স্মরণে সেটিকে কালো কাপড়ে মুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া শোক মিছিলের সময় এবং অন্যান্য বিশদ বিবরণ সামনে ঘোষণা করা হবে বলে রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম ফারস নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে।

এদিকে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত হওয়ার পর ইরানের প্রেসিডেন্ট ইবরাহিম রাইসির এক্স অ্যাকাউন্টে দেওয়া এক পোস্টে পবিত্র কোরআনের কয়েকটি আয়াত শেয়ার করা হয়েছে।

সদ্য প্রয়াত এই প্রেসিডেন্টের অ্যাকাউন্টে দেওয়া ওই পোস্টে কোরআনের আয়াতের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, ইবরাহিমের ওপর শান্তি বর্ষিত হোক। প্রকৃতপক্ষে, আমরা এইভাবে সৎকর্ম-শীলদেরকে পুরস্কৃত করি। প্রকৃতপক্ষে, তিনি আমাদের বিশ্বাসী বান্দাদের মধ্যে ছিলেন।

spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_img
spot_img