প্রয়োজনকালে ভারতীয় সেনাবাহিনীর গোলাবারুদ রাশিয়ায় পড়ে আছে

চীনা সামরিক বাহিনীর সাথে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সশস্ত্র সঙ্ঘাতের আশঙ্কার মধ্যেও গত ফেব্রুয়ারি থেকে রাশিয়ার গুদামে বিপুল পরিমাণে গোলাবারুদ ভারতে পরিবহনের অপেক্ষায় পড়ে আছে। ভারতীয় সেনাবাহিনী ১৯০ মিলিয়ন ডলারের বেশি দাম দিয়ে জরুরিভিত্তিতে এগুলো কিনেছিল।

বলা হয়েছিল যে ভারতীয় প্রতিনিধিদের বাধ্যতামূলক প্রি-ডেসপাচড ইন্সপেকশনের (পিডিআই) পরপরই এগুলো ভারতে আনার ব্যবস্থা করা হবে। কিন্তু ভারতীয় সেনাবাহিনী সাত মাসের মধ্যেও পিডিআই সম্পন্ন করতে পারেনি।

প্রথমত, কোভিড-১৯ মহামারির কারণে ভারতীয় সেনাবাহিনী তার পরিদর্শকদেরকে রাশিয়া পাঠাতে পারেনি। এরপর প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় তাদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এটি সম্ভবত আরোপ করা হয়েছিল ব্যয়ের কারণে।

এদিকে ভারতীয় বিমান বাহিনী ও নৌবাহিনী তাদের প্রয়োজনীয় পিডিআই সম্পন্ন করে তাদের ক্রয়াদেশ দেয়া গোলাবারুদ সংগ্রহ করে নিয়েছে। এটি করা হয়েছে মস্কোতে ভারতীয় দূতাবাসে কর্মরত বিমান ও নৌ অ্যাটাশের মাধ্যমে।

মস্কোতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক কর্মকর্তাও নিয়োজিত আছেন। তিনি ব্রিগেডিয়ার পদমর্যাদার সামরিক অ্যাটাশে। কিন্তু পিডিআই করার জন্য সেনাবাহিনী তাকে দায়িত্ব দেয়নি।

এর ফলে ভারতীয় সেনাবাহিনী যখন জরুরিভিত্তিতে বিশ্ববাজার থেকে অস্ত্র আমদানি করছে, তখন রাশিয়ার গুদামে তাদের গোলাবারুদ পড়ে আছে। আবার এসবের জন্য বাড়তি মাশুলও গুণতে হতে পারে। কারণ মস্কো এই বিলম্বের জন্য বাড়তি ভাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছে।

তবে কোন ধরনের গোলাবারুদ মস্কোতে পড়ে আছে তা প্রকাশ করা হয়নি।

এদিকে রুশ সরকারের প্রতিরক্ষা রফতানি সংস্থা রোসোবোরোনেক্সপোর্ট (আরওই) নয়া দিল্লীকে অন্তত তিনটি চিঠি লিখে দ্রুত পিডিআই সম্পন্ন করার তাগিদ দিয়েছে।

৯ জুলাই তারিখে লেখা চিঠিতে আরওইর উপপরিচালক সার্গেই ল্যাডিজিন ভারতের প্রতিরক্ষা দফতরকে চিঠি লিখে এই বিলম্বের জন্য আর্থিক ক্ষতির বিষয়টি তুলে ধরেছেন। তিনি নৌযান ভাড়া, নির্ধরিত সময়ে পাওনা পরিশোধ না করা, গুদামঘরে মালামাল জমে থাকা, নিরাপত্তা বাড়ানোর খরচের বিষয় তুলে ধরেন চিঠিতে।

তিনি ভারতীয় বিমান বাহিনীর দৃষ্টান্ত অনুসরণ করার তাগিদ দিয়ে বলেন তারা বিমান বাহিনীর এটাশেকে দিয়ে পিডিআই সম্পন্ন করে ফেলেছে।

গত ২৩ সেপ্টেম্বর রাশিয়ার স্থল বাহিনী বিভাগের প্রধান আলেক্সান্ডার ভিশার ভারতীয় সেনাবাহিনীর মাস্টার জেনারেল অব অর্ডিন্যান্স লে. জেনারেল সন্তোষ কুমার উপাধ্যায়কে লেখা এক চিঠিতে উল্লেখ করেন, ভারতীয় সেনাবাহিনীর ক্রয়াদেশ করা গোলাবারুদ রুশ কর্মকর্তারাও পরীক্ষা করতে পারেন।

গত ১ অক্টোবর আরেক চিঠিতে আরওইর মহাপরিচালক আলেক্সান্ডার মিকেভও প্রতিরক্ষাসচিব অজয় কুমারের কাছে তাগাদা পত্র লিখেন।

এদিকে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সদরদফতর ৯ অক্টোবর এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তারা মস্কোতে রুশ দূতাবাসের সামরিক শাখাকে পিডিআই সম্পন্ন করার কর্তৃত্ব দিচ্ছে। তারা কাজটি সম্পন্ন করবে।

সূত্র: বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *