উগান্ডায় ষষ্ঠ বারের মতো প্রেসিডেন্ট হলেন ‘স্বৈরশাসক’ ইওয়েরি মুসেভেনি

উগান্ডার প্রেসিডেন্ট হিসেবে ষষ্ঠবারের মতো নির্বাচিত হয়েছেন ইওয়েরি মুসেভেনি।

যদিও এ নির্বাচন নিয়ে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ করেছে বিরোধী দল।

আফ্রিকার দীর্ঘ সময়ের এক ‘স্বৈরাচার’ হিসেবে তিনি পরিচিত।

বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হওয়া ওই নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট ইয়োবেরি মুসেভেনির প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন তরুণ পপ গায়ক।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ৭টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। নির্বাচনের ফলাফল শনিবার প্রকাশ করা হয়।

করোনা মহামারির মধ্যে রক্তাক্ত সংঘর্ষে গড়ায় নির্বাচন প্রচারণা। এখন পর্যন্ত কয়েক ডজন মানুষ মারা গেছেন। গ্রেপ্তারের শিকার হন ববি ওয়াইনসহ বিরোধী অনেক নেতা-কর্মী।

রাজধানী কামপালাসহ অনেক জেলায় প্রচারণার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

বিরোধী দলের দাবি, এসব জায়গায় তাদের জনপ্রিয়তার কারণে করোনাভাইরাসের অজুহাতে সেখানে প্রচারণা বন্ধ করে দিয়েছে সরকার।

এ ছাড়া নির্বাচনের আগে সব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ করে দেয় সরকার।

নির্বাচনের আগে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে মুসেভেনির দলের বিভিন্ন নেতাদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয় ফেসবুক।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রেসিডেন্ট মুসেভেনি তার দেশে ফেসবুক বন্ধ করে দেন।

মুসেভেনি জানিয়েছেন, তার দল সমর্থিত অনেক অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করায় ফেসবুক বন্ধ রাখা হয়েছে।

উগান্ডার পুলিশ জানিয়েছে, নির্বাচনের দিন কামপালার ছাদগুলো তাদের দখলে ছিল। রাস্তাগুলোতেও পুলিশ নিয়মিত টহল দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *