শনিবার, জুন ১৫, ২০২৪

‘সিরিয়ার জনগণের তেল চুরি করে ইসরাইলে পাঠাচ্ছে আমেরিকা’

সিরিয়ার জনগণের তেল চুরি করে মার্কিন সেনারা অন্য কোথাও পাচার করছে তবে ধারণা করা যায় সম্ভবত ইহুদিবাদী ইসরাইলেই তা পাঠানো হচ্ছে।

ইরানের স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল প্রেস টিভিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে আমেরিকার রাজনৈতিক বিশ্লেষক, লেখক এবং সৌদি আরবের নিযুক্ত সাবেক রাষ্ট্রদূত জে. মাইকেল স্প্রিং ম্যান এ কথা বলেছেন।

সিরিয়ার তেল এবং অন্যান্য প্রাকৃতিক সম্পদ লুটপাট করার জন্য আমেরিকা ইরাক থেকে শত শত সেনা এবং বিপুল পরিমাণ অস্ত্রশস্ত্র সিরিয়ায় নিয়ে গেছে। সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় হাসাকা এবং দেইর আজ-জাওয়ার প্রদেশের এসব সেনা ও অস্ত্র মোতায়েন করা হয়েছে।

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল জানিয়েছে, ইরাক থেকে 200 সেনাকে আকাশপথে সিরিয়ার আশ-শাদ্দাদি শহরে নেয়া হয়েছে। হাসাকা প্রদেশের রাজধানী থেকে ৬০ কিলোমিটার দক্ষিণে আশ-শাদ্দাাদি শহরের অবস্থান।

তেল চুরি করা প্রসঙ্গে স্প্রিংম্যান বলেন, ইরাকে সেনা মোতায়েন রেখে দেশটিতে দখলদারিত্ব কায়েম করে রেখেছে আমেরিকা এবং সিরিয়াতেও তারা একইভাবে দখলদারিত্ব অব্যাহত রাখতে চাই যাতে সেখানকার তেল চুরি করা যায় এবং সেই তেল অন্য কোথাও পাচার করা যায়। তবে আমেরিকায এই তেল মূলত বর্ণবাদী ইসরাইলে পাচার করছে বলে ধারণা করা যায়।

মাইকেল স্প্রিংম্যান আরো বলেন, দ্বিতীয়বিশ্বযুদ্ধের পর জার্মানি এবং জাপান দখল করে রেখেছে আমেরিকা।

সুত্র: পার্সটুডে

spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_img
spot_img