শনিবার, জুলাই ২০, ২০২৪

সিন্ডিকেটের নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার দায়ে সরকারের পদত্যাগ করা উচিত : মাওলানা ইউনুছ

সরকারের তরফ থেকে দাম নির্ধারণ করে দেওয়ার পরও তা নিয়ন্ত্র্রণ করতে না পারা সরকারের চরম ব্যর্থতা। এই ব্যর্থতার দায় নিয়ে সরকারকে পদত্যাগের দাবি জানান ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ।

তিনি বলেন, বাজার দর কেউ মানছে না। নিত্যপণ্যের বাজার কার্যত সিন্ডিকেটের নিয়ন্ত্রণে, সিন্ডিকেট ভাঙতে ব্যর্থ বাণিজ্যমন্ত্রীসহ সরকারকে সসম্মানে পদত্যাগ করে দেশবাসীকে বাচানেরা দাবি জানান মাওলানা ইউনুছ আহমাদ।

আজ মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতিতে মহাসচিব বলেন, পাইকারদের দুষছেন খুচরা ব্যবসায়ীরা। কিন্তু বাড়তি দামে ক্রেতার নাভিশ্বাস চরমে পৌঁছেছে। সরকার খুচরা বাজারে অভিযান জরিমানা মূল্যবৃদ্ধির সঙ্গে জড়িত বড় বড় করপোরেট প্রতিষ্ঠানকে ঠেকাতে ব্যর্থ হওয়ায় সিন্ডিকেটরা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠছে। জাতীয় সংসদের ৩০০ জন সংসদ সদস্যের মধ্যে ১৭৪ জনই ব্যবসায়ী। আর এরাই সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত। পুরো দেশ সিন্ডিকেটের দখলে। কোন কিছু নেই সিন্ডিকেট ছাড়া। বাজারের সিন্ডিকেট ভাঙার এখতিয়ার ভোক্তা অধিদফতরের নেই বলে ভোক্তা অধিদফতরের মহাপরিচালক যে বিবৃতিতে দিয়েছেন তাও নিয়মিত হতাশাজনক। এর পূর্বে এধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি।

মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, নানামুখি উদ্যোগ, পদক্ষেপ গ্রহণ করেও সিন্ডিকেট ভেঙ্গে ফেলা যাচ্ছে না। বাণিজ্যমন্ত্রী জাতীয় সংসদে পণ্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে নিজের অসহায়ত্ব প্রকাশ করার পর সিন্ডিকেটের ব্যাপক দৌরাত্ম্যে ও অরাজকতা ঠেকাতে ডিম, তেল, আলু ও পেঁয়াজের দাম বেঁধে দেয়া হয়। বাণিজ্যমন্ত্রণালয়ের নির্ধারিত দর আড়তদার, পাইকারি ও খুচরা ব্যবসায়ী কেউই মানছেন না। পাইকারি থেকে খুচরা পর্যায়ে যে যার মতো বিক্রি করছেন। এভাবে একটি দেশ চলতে পারে না। তিনি অবিলম্বে সরকারকে পদত্যাগ করে দেশের জনগণ ও দেশকে বাচানোর আহ্বান জানান।

spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_img
spot_img