রবিবার, মে ১৯, ২০২৪

ঈদে ভাসানচরের রোহিঙ্গা মুসলিমদের জন্য ২০০ কুরবানির গরু

নোয়াখালীর ভাসানচরে রোহিঙ্গা মুসলিম শরনার্থীদের মাঝে আনন্দ ভাগাভাগি করতে ঈদুল আযহা উপলক্ষে সেখানে দুই শতাধিক গরু কুরবানি দেওয়া হবে।

এবারের ঈদে বিভিন্ন সংস্থার দেওয়া প্রায় দুই শতাধিক গরু ভাসানচরে আনা হচ্ছে। এগুলো ঈদে কুরবানি করে সেখানকার বাসিন্দাদের মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হবে।

গত শুক্রবার (১৬ জুলাই) ইসলামিক রিলিফের দেওয়া ১৩৫টি গরু ভাসানচরে এসে পৌঁছেছে।

ভাসানচরের আশ্রয়ণ-৩ প্রকল্পের পরিচালক কমডোর এম রাশেদ সাত্তার বলেন, কুরবানির জন্য ভাসানচরে দুই শতাধিক গরু থাকবে। প্রতিটি ক্লাস্টারে তা ভাগ করে দেওয়া হবে। প্রত্যেক পরিবার নূ্ন্যতম যাতে দুই কেজি মাংস পায়, তা নিশ্চিত করা হবে। ইসলামিক রিলিফ বাংলাদেশসহ ২-৩টি এনজিও এসব গরু সরবরাহ করছে।

ইসলামিক রিলিফ বাংলাদেশের জ্যেষ্ঠ প্রকল্প ব্যবস্থাপক জাফর আলম বলেন, আমরা ঈদ উপলক্ষে রোহিঙ্গাদের জন্য ১৩৫টি গরু দিচ্ছি। প্রতি ৩৫ পরিবারের জন্য একটি গরুর বন্দোবস্ত। এছাড়া ৪ হাজার ৫৮২টি পরিবারের মধ্যে একটি করে লুঙ্গি ও একটি খামি দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, মিয়ানমারের মুসলিম গণহত্যার খলনায়িকা অং সান সুচির নিপীড়নে ঈমান বাঁচাতে বাংলাদেশের কক্সবাজারের বিভিন্ন ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছিলেন রোহিঙ্গা মুসলিমরা। পরে সেখান থেকে রোহিঙ্গা মুসলিমদের সাময়িক বসবাসের জন্য নোয়াখালীর হাতিয়ার ভাসানচরে তৈরি করা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন স্থাপনা। বর্তমানে ভাসানচরে ১৮ হাজার ৫২১ জন রোহিঙ্গা মুসলিম অবস্থান করছে। তার মধ্যে পুরুষ চার হাজার ৪০৯ জন। নারী ৫ হাজার ৩১৯ জন। শিশু ৮ হাজার ৭৯০।

spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_img
spot_img