রবিবার, জুলাই ১৪, ২০২৪

পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী কে এই আনোয়ার কাকার?

পাকিস্তানের নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে আনোয়ারুল হক কাকারকে। তিনি বেলুচিস্তান আওয়ামী পার্টির সিনিয়র নেতা ও পাকিস্তানের সংসদের উচ্চকক্ষের সদস্য। আনোয়ারুল হক আগামী ৩ মাস পাকিস্তানের ভারপ্রাপ্ত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করবেন।

গত ৯ আগস্ট পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেওয়ার ঘোষণা দেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফ। নিয়ম অনুযায়ী প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভী প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তে সম্মতি দিয়ে পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেন।

পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেওয়ার পর তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী নিয়োগের জন্য প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী দলীয় নেতাকে নাম প্রস্তাব করতে বলেন প্রেসিডেন্ট আলভী। প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফ ও বিরোধী দলীয় নেতা রাজা রিয়াজের পক্ষ থেকে আনোয়ারুল হক কাকারের নাম প্রস্তাব করা হলে প্রেসিডেন্ট  তাতে সম্মতি দেন।

তবে তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী নিয়োগে ইমরান খানের দল তেহরিকে ইনসাফের কোন মতামত নেওয়া হয়নি। কারণ সংসদে একক দল হিসেবে সবচেয়ে বেশি আসনের মালিক হলেও জোট সরকার ও সেনাবাহিনীর অপকৌশলে বিরোধী দলের নেতা হয়ে যান রাজা রিয়াজ। রাজা রিয়াজ এমন এক বিরোধী দলীয় নেতা, যিনি ঘোষণাই দিয়েছেন আগামীতে সরকারি দলের হয়ে নির্বাচন করবেন।

আনোয়ার কাকার এমন এক দলের নেতা, যে দলটিকে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করে থাকে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী। আনোয়ারুল হক কাকারের দল বেলুচিস্তান আওয়ামী পার্টির নেতারা একসময় ক্ষমতাসীন দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ এন ও পাকিস্তান মুসলিম লীগ কিউ’র সাথে যুক্ত ছিলেন। ২০১৮ সালে সেনাবাহিনীর ইশারায়  বেলুচিস্তান আওয়ামী পার্টি নামে নতুন দল গঠন করেন তারা।

২০১৮ সালে ইমরান খান সরকার গঠন করলে তাতে সমর্থন দেয় বেলুচিস্তান আওয়ামী পার্টি। আবার ২০২১ সালে সেনাবাহিনী ইমরান খানের বিরুদ্ধে অবস্থান নিলে তারাও খানের ওপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করে শাহবাজ শরীফের জোট সরকারকে সমর্থন দেয়।

বিশ্লেষকরা মনে করছেন, পাকিস্তানের রাজনীতিকে পূর্ণ প্রভাব ধরে রাখতে ও ইমরান খানের ক্ষমতায় আসা ঠেকাতে আনোয়ার কাকারকে তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বেছে নিয়েছে পাক সেনাবাহিনী। এতে সরকারি দল সম্মতি দিলেও তাদের চাহিদা পূর্ণ হয়নি। শাহবাজ শরীফের দল মুসলিম লীগ এন-এর পক্ষ থেকে নাম প্রস্তাব করা হয়েছিলো অর্থমন্ত্রী ইসহাক দার ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী শহীদ খাকান আব্বাসীর। এছাড়াও ক্ষমতাসীন জোটের দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ দল পিপলস পার্টির পক্ষ থেকেও বেশ কয়েক জনের নাম প্রস্তাব করা হয়েছিল। কিন্তু এমন একজনকে তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে, যার আলোচনা কোন দলের পক্ষ থেকেই ছিলো না।

এই বিষয়ে ইমরান খানের দল তেহরিকে ইনসাফের দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ নেতা শাহ মাহমুদ কোরেশী বলেন, ”আনোয়ারুল হক কাকারকে আমরা ভদ্র মানুষ হিসেবে চিনি। আমরা মনে করি তাকে নিয়োগের ক্ষেত্রে মুসলিম লীগ এন বা পিপলস পার্টির ভূমিকা ছিলো না। তাকে অন্য জায়গা থেকে পছন্দ করা হয়েছে।”

বিশ্লেষকরা মনে করছেন, যদিও ৩ মাসের জন্য আনোয়ার কাকারকে প্রধানমন্ত্রী করা হয়েছে, তবে তার ক্ষমতায় থাকার মেয়াদ আরো অনেক বাড়তে পারে। বিশেষ করে ইমরান খান ও তার দলকে পুরোপুরি নিষ্ক্রিয় করা পর্যন্ত পাকিস্তানে জাতীয় নির্বাচন হওয়া অনেকটাই অনিশ্চিত। তাই আনোয়ার কাকারও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে কতদিন থাকবেন, তাও এখন অনিশ্চিত।

spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_img
spot_img