বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১

ভারতের সাথে সমস্যা নিয়ে নাক না গলাতে আমেরিকাকে হুঁশিয়ারি দিল চীন

ভারত-চীন সীমান্ত সমস্যায় ‘তৃতীয় পক্ষ’-এর কোনও জায়গা নেই বলে আমেরিকার উদ্দেশ্যে মন্তব্য করেছে চীন।

আমেরিকাকে ‘তৃতীয় পক্ষ’ হিসেবে উল্লেখ করে নয়াদিল্লিস্থ চীনা দূতাবাস এক বিবৃতিতে ওই মন্তব্য করেছে। খবর পার্সটুডে’র।

আজ (বুধবার) চীনা দূতাবাসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘ভারতীয় উপমহাদেশে আমেরিকা নিজেদের আধিপত্য বাড়াতে চাচ্ছে। সীমান্ত সমস্যা ভারত ও চীনের দ্বিপক্ষীয় সমস্যা। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা (এলএসি) থেকে সেনা সরাতে এবং স্থিতাবস্থা ফেরাতে কূটনৈতিক ও সামরিক স্তরে আলোচনা চলছে। নিজেদের মধ্যে ওই সমস্যা সঠিকভাবে মেটানোর ক্ষমতা রয়েছে নয়াদিল্লি ও বেজিংয়ের। সেখানে তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপের কোনও জায়গা নেই।’

বেজিংয়ের অভিযোগ, ভারতীয় উপমহাদেশে কর্তৃত্ব বাড়ানোর উদ্দেশ্যেই এভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র হস্তক্ষেপ করতে চাচ্ছে। চীনা দূতাবাসের বক্তব্য, উপমহাদেশের দেশগুলোর মধ্যে একে অন্যের সঙ্গে উত্তেজনা বাড়িয়ে তার ফায়দা তুলতে চাচ্ছে হোয়াইট হাউস। একে অন্যের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিয়ে নিজেদের কর্তৃত্ব ও আধিপত্য জাহির করতে চচ্ছে।’ দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক কখনও তৃতীয় পক্ষের স্বার্থে হওয়া উচিত নয় বলেও বিবৃতিতে মন্তব্য করেছে বেইজিং।

ভারত ও চীনের মধ্যে চলমান সীমান্ত সংঘাত ও উত্তেজনার আবহে গতকাল (মঙ্গলবার) নয়াদিল্লিতে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে এক বৈঠকের পরে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেন, ‘সার্বভৌমত্ব ও স্বাধীনতা রক্ষায় আমেরিকা সবসময় ভারতের পাশে থাকবে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমাদের পারস্পারিক দ্বিপাক্ষীয় সম্পর্ক প্রসারিত করতে আমরা একসঙ্গে কাজ করে যাব।’ মাইক পম্পেও এ সময়ে চীনের শাসক দল চীনা কমিউনিস্ট পার্টি’রও তীব্র সমালোচনা করেন।

এরপরেই আজ নয়াদিল্লিতে অবস্থিত চীনা দূতাবাস থেকে এক বিবৃতিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ‘তৃতীয় পক্ষ’ অভিহিত করে পাল্টা সমালোচনা ও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img