দুই লাখের বেশি ইয়াবা ফেলে মিয়ানমার পালাল পাচারকারীরা

কক্সবাজারের টেকনাফের ন্যাচারপার্ক এলাকার নাফ নদী দিয়ে বাংলাদেশের অনুপ্রবেশকালে ২ লাখ ২৬ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে বিজিবি। এসময় কাউকে আটক করা সম্ভব না হলেও ইয়াবার সাথে একটি নৌকা জব্দ করা হয়েছে।

শনিবার (১০ অক্টোবর) সন্ধ্যার পর এ ঘটনা ঘটেছে।

বিষয়টি জানিয়েছেন টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২বিজিবি) অধিনায়ক লে. কর্নেল ফয়সল হাসান খান।

তিনি বলেন, গোপন সংবাদে খবর আসে শনিবার সন্ধ্যার পর ২ বিজিবির আওতাধীন দমদমিয়া বিওপির ন্যাচারপার্ক বরাবর নাফ নদী হয়ে মিয়ানমার হতে ইয়াবার একটি বড় চালান বাংলাদেশে পাচার হতে পারে। এমন খবরে দমদমিয়া বিওপির একটি বিশেষ টহলদল ঐ এলাকার নাফ নদীর কিনারে গিয়ে অবস্থান নেয়। নাফ নদী দিয়ে ৪-৫ জন ব্যক্তিকে ২টি নৌকা নিয়ে মিয়ানমার হতে শূন্য রেখা অতিক্রম করে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে দেখে টহলদল। অবৈধ অনুপ্রবেশকারীদের ধরার জন্য অনতিবিলম্বে চ্যালেঞ্জ করে তারা।

নৌকায় থাকা ব্যক্তিরা টহলদলকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি করে। টহলদলও পাল্টা গুলি করে। বিজিবির পাল্টা গুলিতে ভীত হয়ে সামনের নৌকায় থাকা ইয়াবা পাচারকারীরা নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে এবং পেছনে আসা ইঞ্জিন চালিত নৌকায় স্থানান্তরিত হয়ে দ্রুত মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলে যায়। পরে টহলদল পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া নৌকাটি তল্লাশি করে ৩টি প্লাস্টিকের বস্তা পায়। তা খুলে ২ লাখ ২৬ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করে।

তিনি আরো বলেন, উদ্ধারকৃত মালিকবিহীন ইয়াবাগুলো বর্তমানে ব্যাটালিয়ন সদরের স্টোরে জমা রাখা হয়েছে। প্রয়োজনীয় আইনি কার্যক্রম গ্রহণ পরবর্তীতে তা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *