মঙ্গলবার, মে ২৪, ২০২২

অবশেষে আফগান থেকে বিদায় নিচ্ছে মার্কিন সেনারা

গত বছরের ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে তালেবানের সাথে আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তি অনুযায়ী আগামী ১ মে’র মধ্যে আফগান থেকে সকল মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহার করার কথা রয়েছে। তবে খোদ আমেরিকাই তালেবানের সাথে স্বাক্ষরিত চুক্তি রক্ষা করছে না। ১ মে’র আগের আগে সেনা প্রত্যাহার না করে চলতি বছরের ১১ সেপ্টেম্বর প্রত্যাহারের কথা বলছে দেশটি।

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) আমেরিকার এক সিনিয়র কর্মকর্তা এ কথা বলেন।

তিনি জানান, কঠোরভাবে নীতিমালা পর্যালোচনা করে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ১১ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এর মাধ্যমে ২০ বছর পর আফগানিস্তানে মার্কিন যুদ্ধ শেষ হবে।

মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের জন্য নির্ধারিত করা ১১ সেপ্টেম্বর আমেরিকার জন্য একটি গভীর বেদনা দিন। যেদিন আমেরিকা টুইন টাওয়ারে হামলার ঘটনা ঘটে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২৯ ফেব্রুয়ারি আফগান তালেবানের সাথে আমেরিকা একটি চুক্তি সই করে যার আওতায় আফগানিস্তান থেকে ১২ হাজার মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করার কথা। এর বিনিময়ে তালেবান যোদ্ধারা মার্কিন সেনাদের ওপর হামলা বন্ধ করবে বলে প্রতিশ্রুতি দেয়। বর্তমানে এখনো আফগানিস্তানে আড়াই হাজার মার্কিন সেনা দখলদারিত্ব বজায় রাখছে।

আমেরিকার জন্য আফগানিস্তান ছিল তার সবচেয়ে বেশি দিন স্থায়ী সঙ্ঘাত। আমেরিকা বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার ব্যয় করেছে, তাদের ২,৪০০-এর বেশি সৈন্যকে হারিয়েছে। ২০ বছর কেটে গেছে। কিন্তু এখনো তালেবান তাদের লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে।

তবে তালেবানের সাথে আমেরিকার স্বাক্ষরিত চুক্তিতে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা সেনা প্রত্যাহারের কথা বলা হলেও এখন পর্যন্ত সে প্রতিশ্রুতি পূরণ করেনি পেন্টাগন।

এদিকে চুক্তি অনুযায়ী সেনা প্রত্যাহার করা না হলে আমেরিকাকে ভয়াবহ যুদ্ধের’ হুঁশিয়ারি দিয়েছে তালেবান। তারা বলছে, চুক্তি অনুযায়ী সেনা প্রত্যাহার করা না হলে ‘ভয়াবহ যুদ্ধ’ এবং ‘সংঘর্ষের ভয়ঙ্কর বিস্তার’ ঘটবে।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img