যেভাবে শহীদ করা হয় পাকিস্তানের প্রখ্যাত আলেম মাওলানা আদিল খানকে

ইনসাফ | নাহিয়ান হাসান


অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলায় শাহাদাত বরণ করেছেন পাকিস্তানের বিশিষ্ট ইসলামিক স্কলার ও সংস্কারক ড. মাওলানা আদিল খান।

শনিবার (১০ অক্টোবর) অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা তার গাড়িতে হামলা করলে তিনি এবং তার গাড়ি চালক শাহাদাত বরণ করেন।

পুলিশ জানায়, মাওলানা আদিল খানের ভিগো গাড়িটি করাচির শাহ ফয়সাল কলোনীর ২ নাম্বার রোডে দাঁড়ানো থাকা অবস্থায় হঠাৎ কয়েকটি মোটরসাইকেল আরোহী অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা মাওলানার গাড়িটিকে লক্ষ্য করে গুলি চালালে গাড়িতে থাকা সকলেই গুরুতরভাবে আহত হন। পরবর্তীতে, অতিদ্রুত তাদেরকে নিকটস্থ লিয়াকত ন্যাশনাল হসপিটালে নিয়ে যাওয়া হয়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তথ্যানুযায়ী, হাসপাতালে আনার পথেই মাওলানা আদিল খান শাহাদাত বরণ করেন। তাছাড়া হাসপাতালের মুখপাত্রের বক্তব্য অনুযায়ী শহীদ মাওলানা আদিলকে দুবার গুলি করা হয়েছে।

করাচির সরকারী জিন্নাহ পোস্ট গ্রাজুয়েট মেডিকেল সেন্টারের পরিচালক ডঃ সামি জামালি বলেন,গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মাওলানা আদিল খানের গাড়ি চালক মাকসুদকে আমাদের মেডিকেলে আনা হলে আমরা অতিদ্রুত তাকে ইমার্জেন্সী ওয়ার্ডে নিয়ে যাই, কিন্তু দুঃখের বিষয় হচ্ছে তিনিও শাহাদাত বরণ করেছেন।

পুলিশের তথ্যমতে, মাওলানা আদিল ও তার গাড়ি চালক মাকসুদ গুলিবিদ্ধ হয়ে শাহাদাত বরণ করলেও মাওলানার গাড়িতে থাকা উমাইর নামী আরোহী ছিলেন সম্পূর্ণ সুস্থ ও নিরাপদ।

এই মর্মান্তিক হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠ তদন্তের জন্য পুলিশ ও রেঞ্জার্সের একটি বড় টিম ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে তদন্ত শুরু করে দিয়েছে। তারা প্রাথমিকভাবে এলাকার সিসিটিভি ক্যামেরার সাহায্যে তদন্ত কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গিয়েছে।

এদিকে শহীদ মাওলানা আদিল খান হত্যাকাণ্ডের প্রাথমিক তদন্তের রিপোর্ট দাখিল করেছেন পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের আইজি।

শনিবার ( ১০ অক্টোবর) সিন্ধুর মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তিনি তার প্রাথমিক তদন্তের রিপোর্টটি দাখিল করেছেন বলে ডেইলি জাঙ্গের খবরে বলা হয়েছে।

প্রাথমিক তদন্তের ফলাফলের বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীর মুখপাত্র সংবাদ মাধ্যমকে জানান, মাওলানা আদিলের একজন বন্ধু শাহ ফয়সাল কলোনীর নিকট অবস্থিত শামা’ শপিং সেন্টারে সামান্য কেনাকাটার জন্য গাড়ি থেকে নামলে মাওলানার ভিগো গাড়িটি কলোনীর ২ নাম্বার রোডে অবস্থান করে। আর তার কিছুক্ষণ পরেই কয়েকটি মোটরসাইকেল আরোহী অজ্ঞাত বন্দুকধারী মাওলানার গাড়িকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায়।

তদন্তে আরো জানা যায় যে, মোট গুলি চালানো হয়েছিল ৫ টি, যার ২ টিই গিয়ে লাগে শহীদ মাওলানা আদিলের দেহে। মাওলানা ও তার গাড়ি চালক গুলিবিদ্ধ হলেও গাড়িতে থাকা মাওলানার অপর সাথীকে কিছুই করা হয়নি। তিনি হাসপাতালে সম্পূর্ণ সুস্থ অবস্থায় আছেন।

সূত্র: ডেইলি জাঙ্গ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *