জাতিসংঘের মানবাধিকার কর্মীদেরও ফিলিস্তিনে যেতে দিচ্ছে না ইসরাইল

জাতিসংঘের মানবাধিকার কর্মীদের ফিলিস্তিনে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না ইহুদীবাদী সন্ত্রাসীদের অবৈধ রাষ্ট্র। এছাড়াও যারা ইহুদীবাদী এই অবৈধ দেশটিতে আছে, তাদের জোর করে বের করে দেওয়া হচ্ছে।

নতুন করে ভিসা না দেওয়ায় কান্ট্রি ডিরেক্টর জেমস হিনানসহ নয়জন জাতিসংঘ মানবাধিকার কর্মকর্তা ও কর্মী ফিলিস্তিন সীমান্ত থেকে চলে আসেন। ফেব্রুয়ারি মাসে জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশন পশ্চিম তীরে অবৈধ বসতি স্থাপনের সঙ্গে জড়িত রয়েছে, এরকম ১০০টি কোম্পানির তালিকা প্রকাশের পর ইহুদীবাদী সন্ত্রাসীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইল জাতিসংঘ মানবাধিকার সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। খবর আল জাজিরার।

হিউম্যার রাইটস ওয়াচের ইসরাইল-ফিলিস্তিন অঞ্চলে পরিচালক ওমর শাকির বলেছেন, ইসরাইল মানবাধিকার সংস্থার পর্যবেক্ষকদের জোর করে বের করে দিয়েছে। তাদের উদ্দেশ্য ফিলিস্তিনে তাদের অবৈধ তৎপরতার কোনো খবর যাতে প্রচার না পায়। এটা হলো ফিলিস্তিনের ওপর তাদের চালানো দমনপীড়ন গোপন করার কুৎসিত কৌশল।

বর্তমানে আম্মানে কর্মরত ওমর শাকির বলেন, এটা হলো যেসব মানবাধিকার সংস্থা ইসরাইলের অবৈধ কর্মকাণ্ড তথা মানবাধিকার লঙ্ঘনের সমালোচনা করে থাকে, তারা যাতে আর সেখানে ঢুকতে না পারে সেটা নিশ্চিত করার অপ্রচেষ্টা।

ইসরাইল যদি এর মাধ্যমে সমালোচনা বন্ধ করতে চায়, তাহলে তাদের সে চেষ্টায় কোনো ফল হয়নি বলে মন্তব্য করে শাকির বলেন, অধিকারকর্মীরা আগের চেয়ে বেশি করে ইসরাইলি কর্মকাণ্ডের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলবেই। মানবাধিকারকর্মীদের চুপ করিয়ে দেয়ার মানে হলো তাদের অপকর্মের দিকে মানুষের মনোযোগকে আরো বেশি আকর্ষণ করা।

এই করোনাকালে মানবাধিকারকর্মীরা সত্য উদ্ঘাটন করে তা মানুষকে অবহিত করবে বলে জানান ওমর শাকির।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *