Warning: sprintf(): Too few arguments in /home/insaf24net/public_html/wp-content/themes/infinity-news/inc/breadcrumbs.php on line 252

মিডিয়ায় একশত ভাগের মাত্র পাঁচ ভাগে আমাদের বিচরণ

মাওলানা শরীফ মুহাম্মাদ | সম্পাদক : ইসলাম টাইমস


মানুষের মনস্তত্ত্ব নির্মান, সমর্থন এবং যে-কোন বিষয়ে ইতিবাচক ও নেতিবাচক পরিস্থিতি সৃষ্টি করার পেছনে মিডিয়ার ভূমিকা অনেক বেশি। দেশের মূলধারার মিডিয়াগুলো ধর্মপ্রাণ মানুষের আবেগ ও তাদের ইস্যুর প্রতি মনযোগী না। বিশেষ করে ধর্মপ্রাণ মানুষের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও অধিকারের প্রতি। মূলধারার মিডিয়ায় নামাজ, রোজা, হজ্জ, যাকাতের মতো ইস্যুতে প্রবন্ধ প্রকাশ করে। কিন্তু দ্বন্দ্বমুখর কোন ইস্যু অর্থাৎ ইসলামের সঙ্গে পশ্চিমের সংঘাত, ইসলামের সঙ্গে পৌত্তলিক সংস্কৃতির সংঘাতের পেক্ষাপটে তেমন ভূমিকা থাকে না। এক্ষেত্রে ইসলামী মিডিয়ার গুরুত্ব অনেক বেশি। ইসলামী মিডিয়াগুলো মুসলিম জাতির আবেগ ও ভালোবাসার প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করে। তাদের সোনালী ইতিহাস স্মরণ করিয়ে দেয়। তাই ইসলামী মিডিয়াগুলোর প্রতি আমাদের মনযোগ দেওয়া অত্যন্ত প্রয়োজন।

তবে ইসলামী মিডিয়াগুলোর বর্তমান অবস্থান খুবই ক্ষীণ। শুধু পথ চলার মতো। মিডিয়ার অনেক শাখা-ই ইসলামী মিডিয়ায় অনুপস্থিত। আমরা যদি রেডিওর কথা বলি, তাহলে সেখানে ইসলামী কোনো মিডিয়া নেই। টেলিভিশন চ্যানেলের ক্ষেত্রেও একই অবস্থা। মিডিয়ার একটি বড় শাখা হচ্ছে প্রিন্ট মিডিয়া বা দৈনিক পত্রিকা। এখানেও ইসলামী মিডিয়াগুলোর তেমন কোনো অবস্থান নেই। কিছু ইসলামী অনলাইন পত্রিকা আছে, যাকে আমরা ইসলামী মিডিয়া মনে করি। আমার দৃষ্টিতে মিডিয়ায় একশত ভাগের মাত্র পাঁচ ভাগে আমাদের বিচরণ।

এমতাবস্থায় ইসলামী মিডিয়ার প্রতি পাঠক এবং পৃষ্ঠপোষক শ্রেণী যদি মনোযোগী হোন, তাহলে এটি ভালো কিছু করতে পারবে। আমার বিশ্বাস, ইসলামী ঘরানার প্রভাবশালী ব্যক্তিরা যদি ইসলামী মিডিয়ার গুরুত্ব অনুধাবন করে ডোনেট করেন, তাহলেই ইসলামী মিডিয়ার উন্নতি হবে এবং মূলধারার মিডিয়ার উপর বড় ধরনের প্রভাব সৃষ্টি করতে সক্ষম হবে।

আলহামদু লিল্লাহ্। দেশে ইসলামী ঘরানার যে কয়েকটি অনলাইন পত্রিকা আছে, ইনসাফ তারমধ্যে প্রথম থেকে কাজ শুরু করেছে। আমি ইনসাফের পথচলা লক্ষ্য করছি। তারা নিউজগুলো সুন্দরভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করে। নিউজে দৃষ্টিভঙ্গিগত ব্যাপার থাকে, ইনসাফ সেক্ষেত্রেও সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। তারা নিউজের ভূমিকা ও শিরোনামে সুন্দর চমক রাখে। ইনসাফের এ বিষয়গুলো আমার ভালো লাগে। এছাড়াও ইনসাফের কিছু বাড়তি উদ্যোগ থাকে। বিভিন্ন লাইভ প্রোগ্রাম, টকশো, সেমিনার ইত্যাদি। আমার মনে হয়, ইনসাফ নিজস্ব গতিতে ধরে ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছে। আমি পত্রিকাটির উজ্জ্বল, ইতিবাচক ও সুন্দর ভবিষ্যতের প্রত্যাশা করি এবং দোয়া করি।

(শ্রুতিলিখন)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *