ময়মনসিংহে মাদরাসার ছাত্র ও তাবলীগের সাথীদের উপর সাদপন্থীদের হামলা উদ্বেগজনক: হেফাজত মহাসচিব

ময়মনসিংহ বড় মসজিদে দাওয়াতে তাবলীগের সাথীদের উপর মাওলানা সাদ কান্ধলভীর অনুসারীদের হামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের (ভারপ্রাপ্ত) মহাসচিব আল্লামা নূরুল ইসলাম জেহাদি।

বুধবার (২০ জানুয়ারি) সংবাদমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে তিনি এই প্রতিবাদ জানান।

হেফাজত মহাসচিব বলেন, দাওয়াতে তাবলীগ ঈমান আমাল শিক্ষার বিশ্বব্যাপী একটি ঐকবদ্ধ প্লাটফর্ম। পরস্পর জোড় মিল মুহাব্বত এ কাজের অন্যতম উসুল বা মূলনীতি। তাই পরস্পর কাঁদা ছোড়াছুড়ি বন্ধ করে একে অপরের প্রতি সহানুভূতিশীল হয়ে এ কাজ করতে হবে। ময়মনসিংহ বড় মসজিদের খতীব মাওলানা আব্দুল হক সাহেবের সঙ্গে আমি কথা বলে বিস্তারিত ঘটনা জেনেছি। আহতদের খোঁজ খবর নিয়েছি। মাদরাসার নিরিহ ছাত্রদের উপর সাদ পন্থীদের হামলার এ ঘটনা বড়ই দুঃখজনক৷

তিনি বলেন, তাবলীগ জামাতের বাণী ইলিয়াস রহ. ইউসুফ রহ. ও এনামুল হাসান রহ. এর পদাঙ্ক অনুসরণ করে তাবলীগের কাজ করলে পরস্পরের মধ্যে কোন মতানৈক্য থাকবে না। যুগ যুগ ধরে দাওয়াত ও তাবলিগের কাজ স্বমহিমায় চলে আসছে৷ তাবলিগ জামাতে কোন দ্বিধা বিভক্তি ছিল না৷ বর্তমানে তাবলিগ জামাতে বিভক্তি ও মারধরের ঘটনা ইসলাম বিদ্বেষীদের গভীর চক্রান্ত বলে আমি মনে করি৷ মোবারক জামাত তাবলীগের মধ্যে বিভক্তি করে ইসলাম বিরোধী অপশক্তি ফায়দা লুটার চেষ্টা করছে। এ ব্যাপার আমাদের সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

হেফাজত মহাসচিব আল্লামা জিহাদী বলেন, মাদরাসার ছাত্রদের উপর মাওলানা সাদপন্থীদের এমন নগ্ন হামলা কখনো মেনে নেওয়া যায় না। অতীতেও টঙ্গী ময়দানে তারা রক্তারক্তির ঘটনা ঘটিয়েছে। আগের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারো ছাত্রদের উপর হামলার ঘটনা চরম উদ্বেগজনক। অনতিবিলম্বে এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের বিচারের আওতায় আনতে হবে। এবং যারা আহত হয়েছে তাদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *