পাকিস্তানকে অস্থিতিশীল করতে আফগানিস্তানের ভূমি ব্যবহার করতে পারে ভারত: ইমরান খান

ইনসাফ | সোহেল আহম্মেদ


পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, আফগানিস্তানের অভ্যন্তরীন শান্তি এই অঞ্চলে বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডকে উৎসাহিত করতে সহায়তা করবে। তবে এই ব্যাপারে ইসলামাবাদের উদ্বেগ রয়েছে যে পাকিস্তানকে অস্থিতিশীল করার জন্য আফগান ভূমি ব্যবহার করতে পারে ভারত।

সোমবার (২৬ অক্টোবর) ‘পাকিস্তান-আফগানিস্তান বাণিজ্য ও বিনিয়োগ ফোরাম’ শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

ইমরান খান বলেন, আফগানিস্তানে শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য তার ভূমিকা অব্যাহত রাখার বিষয়টি দৃঢ়তার সাথে নিশ্চিত করেছে পাকিস্তান। যারাই ক্ষমতায় আসুক না কেন এই সরকার আফগানিস্তানের সাথে সম্পর্ক জোরদার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

পাকিস্তান জাতীয় সংসদের স্পিকার আসাদ কায়সার এই দুই দিনের সেমিনারটি এমন এক সময় আয়োজন করেছেন যখন প্রতিবেশী দেশগুলির মধ্যে বাণিজ্য ও রাজনৈতিক সম্পর্কের কিছুটা উন্নতি হয়েছে। কায়সারের আমন্ত্রণে মার্কিন মদদপুষ্ট আফগান পার্লামেন্টের স্পিকার মীর রহমান রহমানিও এ সেমিনারে অংশ গ্রহণ করেন।

ইমরান খান আরও বলেন, তার সরকার একে অপরের অভিজ্ঞতা থেকে উপকৃত হওয়ার জন্য এবং বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সম্পর্কের প্রেরণা দেওয়ার জন্য আফগানিস্তানের ব্যবসায়ীদের সাথে যোগাযোগ বাড়ানোর চেষ্টা করছে।

আফগান ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদের সহায়তার প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, উভয় দেশের ভবিষ্যত তাদের ঐক্য, পারস্পরিক বাণিজ্য এবং উন্নত অর্থনৈতিক আন্তঃসংযোগের উপর নির্ভরশীল। পাকিস্তান- আফগানিস্তান উভয় মুসলিম দেশেই বিনিয়োগ এবং অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে যা আঞ্চলিক সমৃদ্ধি ও বিকাশ লাভ করবে।

কাশ্মীর ইস্যুতে ইমরান খান পরিস্কারভাবে বলেন, ভারত সরকার ফ্যাসিবাদের সবচেয়ে খারাপ উদাহরণ। তিনি বলেন, যদিও ভারত নিজেকে বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্র হিসাবে দাবি করেছে কিন্তু তার সরকার নিরীহ কাশ্মীরি জনগণের উপর অত্যাচার ও দমন পীড়ন নীতি অবলম্বন করেছে যা দমন-বর্বরতার সবচেয়ে খারাপ উদাহরণ।

ইমরান খান বলেন, আফগান-মালিকানাধীন এবং আফগান-নেতৃত্বাধীন শান্তি প্রক্রিয়া তাঁর সরকারের প্রধান উদ্বেগ এবং আফগানিস্তানে শান্তি বজায় রাখার প্রয়াসে বিশ্বের আর কোনও দেশ পাকিস্তানের সমান কৃতিত্ব নিতে পারবে না।

সূত্র: ডন নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *