বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে ৪৫ মিনিট গোলাগুলি, স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে গেল ১ মাসের বেশি সময় ধরে গোলাগুলি, গোলাবর্ষণ চলমান রয়েছে। এরইমধ্যে এবার নতুন করে গোলাগুলি ও মর্টার শেলের বিকট শব্দ ভেসে আসছে উখিয়া সীমান্তে। এ নিয়ে সীমান্তের বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকালে উখিয়ার আঞ্জুমানপাড়া সীমান্তে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে এসব গোলাগুলি ও মর্টার শেলের বিকট শব্দ হচ্ছে।

গেল ১ মাসের বেশি সময় ধরে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম সীমান্তে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। সীমান্তের ওপারে মিয়ানমার থেকে মর্টার শেল, গোলাগুলিসহ নানা ভারী অস্ত্রের আওয়াজে এ পারের ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু ও বাইশফাঁড়ি এলাকার ২৪ হাজার মানুষ চরম আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে।

এদিকে গত শুক্রবার রাতে মিয়ানমারের ছোড়া কয়েকটি মর্টার শেল এসে পড়ে বাংলাদেশের কোনারপাড়ায় ও শূন্যরেখার আশ্রয় শিবিরে। কোনারপাড়ার মর্টার শেলটি বিস্ফোরিত না হলেও শূন্যরেখায় পড়া মর্টার শেলটি বিস্ফোরিত হয়ে মারা যায় এক রোহিঙ্গা। এ সময় আহত হয় আরও ৫ জন। পরিকল্পিতভাবে মিয়ানমারের বাহিনীগুলো মর্টার শেল নিক্ষেপ করছে বলে দাবি রোহিঙ্গাদের।

বাংলাদেশে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে এখন পর্যন্ত চার দফায় ডেকে কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু তাতেও নেপিদো নিবৃত্ত না হওয়ায় জাতিসংঘকে জানানোর চিন্তা ভাবনা করছে সরকার।

spot_img
spot_img

সর্বশেষ

spot_img