রবিবার, নভেম্বর ২৮, ২০২১

”ইসলামী ব্যাংকিং ও ফাইন্যান্স, সমস্যা ও সম্ভাবনাঃ প্রেক্ষিত বাংলাদেশ” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশি স্টুডেন্টস’ ইউনিয়ন মালয়েশিয়া (বিএসইউএম) কতৃক আয়োজিত “ইসলামী ব্যাংকিং ও ফাইন্যান্স, সমস্যা ও সম্ভাবনাঃ প্রেক্ষিত বাংলাদেশ” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত (২৮ নভেম্বর) অনলাইনে এই সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

বিএসইউএম নিয়মিতই বিভিন্ন ধরনের দক্ষতা উন্নয়ন, উচ্চশিক্ষা ও গবেষণা মূলক সভা-সেমিনার আয়োজন করে থাকে। সেই ধারাবাহিকতায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য আয়োজন করা হয় এই অনুষ্ঠানটি।

বিএসইউএম এর পাশাপাশি এই আয়োজনে সহযোগী আয়োজক হিসেবে ছিলো “কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি”।

১৫টিরও বেশি ইউনিভার্সিটি ও প্রতিষ্ঠান থেকেছাত্র- ছাত্রী, গবেষক, ইয়ুথলিডার ও পেশাজীবীরা এই সেমিনারে অংশগ্রহণ করেন।

পুরো আয়োজনে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামিক ব্যাংকিং ও ফাইন্যান্সের ৪জন বিশেষজ্ঞ আলোচক।

মাওলানা আরিফুল্লা, লেকচারার (কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি) এর কুরআন তেলওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতেই প্রথম বক্তা হিসেবে আলোচনা শুরু করেন ড. মো. মহাব্বাত হোসাইন (সহকারী অধ্যাপক, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজম্যান্ট) ।

তিনি তার আলোচনায় ইসলামিক ব্যাংকিং এন্ড ফাইন্যান্স এর প্রয়োজনীয়তা এবং বাংলাদেশে এর বর্তমান অবস্থান তুলে ধরেন। এ ব্যাংকিং ব্যাবস্হা যে মুসলিম এবং নন-মুসলিম উভয়ের জন্যও প্রয়োজনীয় তার যৌক্তিকতাও তুলে ধরেন।

অন্য দিকে মো. গুলজার নবী (ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার, বাংলাদেশ ব্যাংক) তার আলোচনায় ইসলামিক ব্যাংকিং এন্ড ফাইন্যান্সের জন্য স্বতন্ত্র নীতিমালা প্রনয়ন এবং এ বিষয়ের উপর বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন কোর্স চালুকরণের উপর গুরুত্বারোপ করেন।

আলোচনার তৃতীয় বক্তা হিসেবে আলোচনা শুরু করেন ইসলামি চিন্তাবিদ মো. মুখলেছুর রহমান (প্রতিনিধি, ইসলামিক সলিডারিটি ফান্ড, ও আই সি)।

তিনি বাংলাদেশের ইসলামিক ব্যাংকিং এন্ড ফাইন্যান্সের ইতিহাস তুলে ধরেন এবং ইসলামিক ব্যাংকিং এন্ড ফাইন্যান্স প্রতিষ্ঠানগুলোকে সব ধরনের ফাইন্যান্সিংমোড ব্যাবহারের পরামর্শ দেন। তার আলোচনায় বাংলাদেশে এ বিষয়ের উপর স্বতন্ত্র কিছু প্রতিষ্ঠান তৈরির ব্যাপারে গুরুত্বারোপ করেন। এই সেমিনারে সর্ব শেষ বক্তা হিসেবে ছিলেন মেজবাহ উদ্দীন আহমেদ ( রিসার্চার, ইন্টারন্যাশনাল শারী’আহ রিসার্চ একাডেমী ফর ইসলামিক ফাইন্যান্স, মালয়েশিয়া)।

তিনি ইসলামিক ব্যাংকিং এন্ড ফাইন্যান্সের ভবিষ্যৎ রিসার্চের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন এবং কিভাবে একজন রিসার্চার বাংলাদেশের এ সেক্টরের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারেন তা তুলে ধরেন। এইসেমিনারে অংশগ্রহণকারীদের জন্য ছিলো ই-সার্টিফিকেট।

পুরো আয়োজনে মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল ইনসাফ, ঢাকা টাইমস, মাসিক মদীনা এবং ভয়েস ওয়াল্ড।

বিএসইউএম এর সভাপতি জহিরুল ইসলাম অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন ও অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বি, এস, ইউ, এমের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্টএবং তরুণ গবেষক মোহাম্মদ বোরহান উদ্দীন ( পি এইচ ডি গবেষক, ইসলামিক ব্যাংকিং এন্ড ফাইন্যান্স, আই আই ইউ এম)।

অনুষ্ঠানের আয়োজক কমিটির সমন্বয়কারী ও বিএসইউএম এর সভাপতি পিএইচডি গবেষক জহিরুল ইসলাম সকল আলোচক, আয়োজক কমিটর সদস্য ও অংশগ্রহণকারীকে ধন্যবাদ জানান ও বলেন, বিএসইউএম ছাত্রদের দক্ষতা ও ক্যারিয়ার গঠনের জন্য দিনদিন আরও বেশি ও কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহণে অধিকতর মনোনিবেশ করছে। এছাড়া উচ্চশিক্ষা ও গবেষণায় বাংলাদেশি ছাত্রদের আরও বেশি আগ্রহী করে তুলতে অনেক আয়োজনই করা হচ্ছে। এসব অনুষ্ঠানে ছাত্র ও তরুণ গবেষকদের যে সাড়া পেয়েছি, তা আমাদের বাংলাদেশি ছাত্রদের ক্যারিয়ার গঠনে আরও কার্যকর ও প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণে অনুপ্রেরণা যোগাচ্ছে। করোনা মহামারীর কারণে যেহেতু জনসমাগম করা সম্ভব নয় এবং উচিৎও নয়, তাই আমরা অনলাইনকে বেছে নিয়েছি। তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে আমরা তরুণদের ক্যারিয়ার গঠনে আরও বেশি সহায়ক ভূমিকা রাখতে চাই।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত বিএসইউএম মালয়েশিয়ায় অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের সর্ব বৃহৎ সংগঠন। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেইছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ক্যারিয়ার সেমিনার, খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ গঠনমূলক ও সৃজনশীল নানা ধরনের প্রোগ্রাম বাস্তবায়ন করে আসছে।

পরিবর্তিত পরিস্থিতিতেও তারা নিয়মিত ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সেমিনার, ওয়ার্কশপ, কোর্স ও ক্যারিয়ারগঠমূলক অন্যান্য আয়োজন করছে। তাদের এসব আয়োজনে মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশে অবস্থানরত শিক্ষার্থী ছাড়াও বিভিন্ন দেশ হতে অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রী, গবেষক ও পেশাজীবীরা অংশ নিচ্ছেন। এসব অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীরা অনুষ্ঠান শেষে এসব আয়োজনের মান ও কার্যকারিতা বিষয়ে সন্তোষ প্রকাশ করছেন ও এমন আয়োজনের জন্য বিএসইউএমকে ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি এমন উদ্যোগ অব্যাহত রাখারও আহ্বান জানাচ্ছেন।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img