বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২৭, ২০২২

খালেদা জিয়াকে বন্দি রাখার প্রতিবাদে সমাবেশের ডাক দিয়েছে বিএনপি

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি রাখার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সমাবেশ কর্মসূচি পালন করার ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি।

আজ শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী রিজভী বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে কারাবন্দী করার তিন বছর পূর্ণ হবে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি। দেশনেত্রীকে কারাবন্দী রাখার প্রতিবাদে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ সোমবার ঢাকা মহানগরসহ দেশব্যাপী সকল জেলা ও মহানগরে প্রতিবাদ সমাবেশ কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি।

এসময় রিজভী বলেন, জাতীয়তাবাদী শক্তির অপরাজেয় জীবনীশক্তি, দেশপ্রেমিক মানুষকে যিনি উজ্জীবিত করে এসেছেন, শত নির্যাতনের মধ্যেও যিনি গণতন্ত্র অর্জনের প্রশ্নে স্বমহিমায় অটল-আপোষহীন অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন, অন্যায়ের বিরুদ্ধে যার অঙ্গীকারাবদ্ধ মুষ্টিবদ্ধ হাত আজো লাখো মানুষের হৃদয়ে সংগ্রামী চেতনা ছলকে ওঠে সেই নিপীড়িত-নির্যাতিত মজলুম নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে আজ প্রায় তিন বছর ধরে আটকে রাখা হয়েছে। গত ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি তাকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করা হয়। গত মার্চে কারাগার থেকে বাড়িতে নিয়ে আসা হলেও তিনি মূলতঃ গৃহবন্দী। যিনি অপরিসীম নিষ্ঠাসহকারে ভালবাসা দিয়ে দেশের জনগণের অধিকারকে পুণরুদ্ধার করেছিলেন সেই নেত্রী এখন গৃহবন্দী। ইনশাল্লাহ আন্দোলন সংগ্রামের মাধ্যমে দেশনেত্রীকে এদেশের জনগণ মুক্ত করবেই।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্য সমালোচনা করে রিজভী বলেন, নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে ৬ মহানগরীর মহাসমাবেশ কর্মসূচিকে দেশের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিনষ্টের ষড়যন্ত্র বলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বিএনপির সমাবেশ শক্ত হাতে দমনের হুমকি দিয়েছেন। মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে জনরোষের ভয়ে ওবায়দুল কাদের সাহেবরা ঘরে বসে হুঙ্কার দিচ্ছেন। এই হুঙ্কার দিয়ে লাভ নেই। আপনাদের জারিজুরি সব ক্রমাগতভাবে ফাঁস হচ্ছে। জনগণের নিকট পরিষ্কার হয়ে গেছে-বর্তমান শাসন সম্পূর্ণরুপে গণতন্ত্রবিবর্জিত এবং মাফিয়াদের দ্বারা পরিচালিত। গণতান্ত্রিক অধিকার সংবিধান স্বীকৃত। গণতান্ত্রিক অধিকার হচ্ছে সভা-সমাবেশ করা। আর সেই সভা-সমাবেশ বন্ধ করার হুমকি কোন রাজনৈতিক নেতা দিতে পারেন না, সেটি কেবল মাফিয়ারাই দিতে পারে।

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, নড়াইল জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের নামে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত মানহানির মামলায় ২ বছরের সাজা দেওয়ার প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে খুলনা জেলা যুবদলের বিক্ষোভ মিছিলে ফ্যাসিবাদী সরকারের পেটোয়া পুলিশ বাহিনীর নির্মম পিটুনিতে আহত হয়েছেন খুলনা জেলা যুবদলের সহ সভাপতি শাহিনুর রহমান শাহীন, রুপসা থানা শাখার যুগ্ম আহবায়ক নাজমুস সাকিব, আহবায়ক কমিটির অন্যান্য সদস্য সাইফুল ইসলাম রাজ, রমিজ রানা, এস এম মিজানুর রহমান, আসলাম গোলদার, শেখ হান্নান মীর, ডুমুরিয়া থানা যুবদল নেতা মোঃ খাজা, ফুলতলা থানা যুবদল নেতা সৈয়দ আল সাকিল, মোঃ ইউসুফ, মোঃ মোহসিন, মোঃ তৈয়েবুর রহমান, সভাপতি-কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের খুলনা বিভাগীয় সহ সভাপতি, মোঃ ইউনুস আহমেদ, যুগ্ম আহবায়ক-পাইকগাছা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দল, মোঃ শামীম জুয়াদ্দার, যুগ্ম আহবায়ক-পাইকগাছা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দল, মোঃ আক্তার আহমেদ, সদস্য সচিব-নৈহাটি ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দল, রাজু মুন্সি, আহবায়ক-আইচগাতি ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দল। আমি পুলিশের এই ন্যাক্কারজনক ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আহত নেতাকর্মীদের আশু সুস্থতা কামনা করছি।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img