বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০২২

তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি প্রত্যাহার করতে হবে : বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস

সবধরণের জ্বালানি তেলের দাম অস্বাভাবিক বৃৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ।

তিনি বলেন, বিদ্যুৎ লোডশেডিং এ মানুষ বিপর্যস্ত, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিপত্রের দাম বেড়েই চলছে। কোনোভাবেই সরকার নিয়ন্ত্রন করতে পারছে না, এর মধ্যে সবধরণের জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি মানুষের জীবনকে আরও দুর্বিষহ করে তুলবে। সরকার গত নভেম্বরে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম এক লাফে ১৫ টাকা বৃদ্ধি করেছিলেন। তখন দাম নির্ধারণ করা হয় ৮০ টাকা লিটার। ডিজেলের দাম বাড়ানোর পর বাস ভাড়া বাড়ানো হয় প্রায় ২৭ শতাংশ, লঞ্চ ভাড়া বাড়ানো হয় ৩৫ শতাংশ যা তেলের দাম বাড়ানো হারের চেয়ে অনেক বেশি। গতকাল আবার জ্বালানি তেলের দাম একলাফে প্রায় ৫০ শতাংশের কাছাকাছির বাড়ানোর ফলে জনজীবনে চরম দূর্ভোগ নেমে আসবে। পরিবহন ভাড়াসহ সবজিনিসপত্রের দাম আরও বেড়ে যাবে। মানুষের জীবনে নেমে আসবে ভয়াবহ সংকট।

আজ শনিবার (৬ আগস্ট) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, সাধারণ মানুষের কথা ভাবুন। মানুষের আয়ের সাথে ব্যয়ের কোনো সমন্বয় নেই। এভাবে সবকিছুর দাম বাড়তে থাকলে মানুষ নিজেদের জীবন বাঁচাতে অন্যপথ বেঁচে নিবে। তখন সমাজ ও রাষ্ট্রে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে।

মাওলানা জালালুদ্দিন বলেন, বিশ্ববাজারে তেলের দাম নিম্নমুখী হলেও হঠাৎ করে আমাদের দেশে কেনো তেলের দাম বৃদ্ধি করা হলো তা আমাদের বোধগম্য নয়। তিনি সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি প্রত্যাহার করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

spot_img
spot_img

সর্বশেষ

spot_img