মঙ্গলবার, জুলাই ১৪, ২০২০

‘মাস্ক-পিপিইসহ সরঞ্জামাদি সরবরাহে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’

প্রসঙ্গ: কুরবানী কিছু ভুল চিন্তার অপনোদন

শায়েখ সাজিদুর রহমান | মুহতামিম : জামিয়া দারুল আরকাম আল-ইসলামিয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া, শায়খুল হাদিস : জামিয়া ইউনুছিয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও সহ সভাপতি : বেফাক الحمد لله،...

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শারীরিক অবস্থার ফের অবনতি

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) পরবর্তী সেকেন্ডারি নিউমোনিয়ায় ভুগছেন। দীর্ঘ একমাস রোগে ভোগায় তার শরীর দুর্বল। স্বরতন্ত্রের প্রদাহের কারণে...

পণ্য প্রবেশে বাঁধা, ভারতকে চিঠি দিল বাংলাদেশ

কোভিড ১৯ পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘদিন বানিজ্য বন্ধ থাকার পর সব ধরনের মাধ্যমে ৬ জুন থেকে ভারত-বাংলাদেশ আবার আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য শুরু হয়েছে। কিন্তু ভারতীয় পণ্য...

সংসদে ৫ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকার বাজেট পাস

অর্থনৈতিক উত্তরণ ও ভবিষ্যত শ্লোগান নিয়ে জাতীয় সংসদে ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য ৫ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকার জাতীয় বাজেট পাস হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (৩০ জুন)...

দেশে করোনায় একদিনে রেকর্ড ৬৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত আরও ৩৬৮২ জন

দেশে একদিনে আরও ৩৬৮২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সবমিলিয়ে দেশে ১৪৫৪৮৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট শনাক্তের হার ১৮.৪৪ শতাংশ। এসময়ের মধ্যে সারাদেশে নমুনা পরীক্ষা করা...
‘মাস্ক-পিপিইসহ সরঞ্জামাদি সরবরাহে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’‘মাস্ক-পিপিইসহ সরঞ্জামাদি সরবরাহে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’‘মাস্ক-পিপিইসহ সরঞ্জামাদি সরবরাহে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’‘মাস্ক-পিপিইসহ সরঞ্জামাদি সরবরাহে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’

মাস্ক, পিপিই ও অন্যান্য সরঞ্জামাদিসহ বিভিন্ন হাসপাতালে সরবরাহের নামে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে.

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এক বিশেষ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

শুক্রবার দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদকে অবহিত করা স্বাস্থ্য খাতসহ বিভিন্ন বিষয়ে দুর্নীতি বিষয়ক একটি বিশেষ প্রতিবেদন এ কথা বলা হয়।

দুদকের গোয়েন্দা অনুবিভাগের পরিচালক মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলীর স্বাক্ষরে প্রণীত এ প্রতিবেদনে বলা হয়, কমিশনের অনুমোদনক্রমে বিগত তিন মাসে ত্রাণ দুর্নীতি, সরকারি খাদ্য গুদামের খাদ্য-সামগ্রী আত্মসাৎ, অবৈধভাবে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনসহ বিভিন্ন অভিযোগে ২৩টি মামলা করেছে দুদক। প্রতিটি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তাও নিয়োগ করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে কভিড-১৯ এর চিকিৎসার জন্য ক্রয় করা নিম্নমানের মাস্ক, পিপিই ও অন্যান্য সরঞ্জামাদিসহ বিভিন্ন হাসপাতালে সরবরাহের নামে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসব অভিযোগ দ্রুততার সঙ্গে অনুসন্ধান করা হচ্ছে।

এসময় দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বলেন, স্বাস্থ্য খাতের যেকোনো দুর্নীতি অনিয়মের বিষয়ে দুদক শূন্য সহিষ্ণুতার (জিরো টলারেন্স) নীতি অনুসরণ করছে।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণে বর্তমান কমিশন প্রতিকার ও প্রতিরোধমূলক বেশকিছু ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। কমিশন ২০১৭ সালেই স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতি প্রতিরোধে প্রাতিষ্ঠানিক টিম গঠন করেছিল। ২০১৯ সালের শুরুতে স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতির (১১টি) উৎস ও তা নিয়ন্ত্রণে ২৫ দফা সুনির্দিষ্ট সুপারিশসহ কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত একটি প্রতিবেদন দুদক কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও সচিবের নিকট হস্তান্তর করেন। এই পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন বাস্তবায়ন করা গেলে হয়তো স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতির লাগাম কিছুটা হলেও টেনে ধরা সম্ভব হতো।

এছাড়া ঢাকা, সাতক্ষীরা, রংপুর, চট্টগ্রাম, ফরিদপুরসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা সামগ্রী ক্রয়ে দুর্নীতির অভিযোগেও কমিশন থেকে ১১টি মামলা করা হয়। এই ১১টি মামলায় সম্পৃক্ত ১৪টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কালো তালিকাভুক্ত করার বিষয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ করা হয়। সংশ্লিষ্ট এসব অনুসন্ধান এখনও শেষ হয়নি। হয়তো আরও মামলা হবে, আরও প্রতিষ্ঠান কালো তালিকাভুক্ত করার সুপারিশ করা হবে।

ইকবাল মাহমুদ আরও বলেন, মোদ্দা কথা হচ্ছে স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতির প্রতি করোনা প্রাদুর্ভাবের আগ থেকেই কমিশন সক্রিয় ছিল। সব মিলিয়ে স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতির বিরুদ্ধে কমিশন শূন্য সহিষ্ণুতার নীতি অনুসরণ করছে।

তিনি বলেন, এরপরও কভিড-১৯ এর চিকিৎসা সামগ্রী ক্রয়ে দুর্নীতির অভিযোগ এসেছে। কমিশন অভিযোগটি আমলে নিয়ে অনুসন্ধানের নির্দেশ দিয়েছে। এই অনুসন্ধানটি হতে হবে নির্মোহ ও পূর্ণাঙ্গ। মানুষকে সবকিছু জানাতে হবে।

দুদক চেয়ারম্যান বলেন, দুদক কোনো কিছুই গোপন করে না, করবেও না। বিশ্বাসযোগ্য তথ্য ও দালিলিক প্রমাণাদির মাধ্যমে যেমন অপরাধীদের আমলে আনতে হবে, তেমনি জনগণের কাছেও কমিশনকে জবাবদিহি করতে হবে। জনগণের এই প্রতিষ্ঠানটি জনগণের কাছে দায়বদ্ধ।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ত্রাণ আত্মসাৎকারীদের আমরা আগেই সতর্ক করেছিলাম। তারপরও কতিপয় লোভী মানুষকে প্রতিরোধ করা যায়নি। তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। অনেকে গ্রেপ্তার হয়েছে। বাস্তবতা হচ্ছে এদেরকে আইনের মুখোমুখি হতে হচ্ছে।

ইকবাল মাহমুদ বলেন, ত্রাণ আত্মসাতের মামলাগুলোর আর্থিক সংশ্লিষ্টতা কম হলেও মামলাগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই মামলাগুলো নিখুঁতভাবে তদন্ত সম্পন্ন করতে হবে। কোনো অবস্থাতেই প্রকৃত অপরাধীরা যেন পার না পেয়ে যায়।

এছাড়া তিনি বলেন, অত্যন্ত প্রতিকূল পরিবেশেই দুদককে আইনি দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। করোনায় দুদকের দুইজন কর্মকর্তা প্রাণ হারিয়েছেন। এখনো ১৫ জনের বেশি কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

দুদক চেয়ারম্যান বলেন, অনেক কর্মকর্তা-কর্মচারীর পরিবারের সদস্যরাও করোনায় আক্রান্ত। আমি তাদের সকলের রোগমুক্তি কামনা করি। সবাই স্বাস্থ্য বিধি মেনে দাপ্তরিক কার্যক্রম পরিচালনা করবেন।

‘মাস্ক-পিপিইসহ সরঞ্জামাদি সরবরাহে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’‘মাস্ক-পিপিইসহ সরঞ্জামাদি সরবরাহে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’
‘মাস্ক-পিপিইসহ সরঞ্জামাদি সরবরাহে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’
‘মাস্ক-পিপিইসহ সরঞ্জামাদি সরবরাহে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’

সর্বশেষ

উত্তাল আমেরিকা: সেন্ট জনস চার্চে আগুন, মাটির নিচে লুকালেন ট্রাম্প

মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যে শ্বেতাঙ্গ পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে পুরো আমেরিকা। শুক্রবার রাতে ওয়াশিংটন ডিসিতে হোয়াইট হাউজের বাইরে বিক্ষোভকারীরা উপস্থিত...

কিছু মানুষ কখনও করোনায় আক্রান্ত হবে না: বলছে গবেষণা

সব মানুষের শরীরে সংক্রমণ ঘটানোর সক্ষমতা নেই করোনাভাইরাসের। সম্প্রতি এক নতুন গবেষণা বলছে, কিছু মানুষের শরীরে এমন ধরনের 'টি সেল' রয়েছে, যার কারণে তারা...