বিশ্বজুড়ে মুসলমানদের তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে আমেরিকার সেনাবাহিনী

ইনসাফ | নাহিয়ান হাসান


জনপ্রিয় দুটি ইসলামিক অ্যাপ ‘মুসলিম প্রো’ এবং ‘মুসলিম মিঙ্গেল’ বিশ্বজুড়ে মুসলমানদের অবস্থান সম্পর্কিত তথ্য বিক্রি করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনর কাছে।

টেকনলজিকাল অনলাইন সংবাদ সংস্থা মাদারবোর্ডের অনুসন্ধানে এই তথ্য বেরিয়ে এসেছে।

সোমবার (১৬ নভেম্বর) এই সংক্রান্ত একটি নিউজ প্রকাশ করেছে মিডলইস্ট আই।

তাদের প্রকাশিত সংবাদ মতে, বিশ্বজুড়ে ইবাদাত ও ডেটিং সংশ্লিষ্ট যতো জনপ্রিয় মুসলিম অ্যাপ ব্যবহারকারী রয়েছে, মূলত তাদেরই অবস্থান সম্পর্কিত তথ্য অর্থ দিয়ে ক্রয় করে নিয়েছে ইউএস মিলিটারী।

তথ্যপ্রাপ্তির ক্ষেত্রে জনপ্রিয় ইসলামিক প্রেয়ার অ্যাপ মুসলিম প্রো এবং মুসলিম ডেটিং অ্যাপ মুসলিম মিঙ্গেলের নাম বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

কারণ, বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা এই অ্যাপ দুটির মুসলিম গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্যের ধারক মুসলিম প্রো এবং মুসলিম মিঙ্গেলের তথ্যভাণ্ডারের দেখাশুনাকারী প্রতিষ্ঠান লোকেট এক্স ও এক্সমোডের সহায়তায় মুসলমানদের ব্যক্তিগত তথ্য অর্থের বিনিময়ে হাতিয়ে নিচ্ছে ইউএস মিলিটারী।

খবরে আরো বলা হয়,বিশ্বব্যাপী মুসলিম নিধনে ইউএস মিলিটারীর স্পেশাল ফোর্সগুলোর অপারেশনে সহায়ক হিসেবে এসমস্ত তথ্য ক্রয় করছে বিশ্বব্যাপী কাউন্টার টেরোরিজম সহ ইত্যাদি বিষয় নিয়ে কাজ করে যাওয়া ইউএস স্পেশাল মিলিটারী কমান্ডোর বিশেষ একটি দল।

এছাড়াও, টেক নিউজ ‘মাদারবোর্ডের’ তথ্যানুযায়ী ইউএস মিলিটারী কর্তৃক অ্যাপ থেকে তথ্য সরবরাহের যে তালিকাটি তাদের অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে তাতে দেখা যায়,শুধুমাত্র মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ রাষ্ট্রগুলোর মুসলিমদেরই ব্যক্তিগত তথ্য সরবরাহ করা হয়েছে,যা কিনা কয়েকদশক যাবত আফগানিস্তান, ইরাক ও পাকিস্তান সহ মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশগুলিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃক মুসলিম নিধনে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

কল্যাণকর কাজের আড়ালে ব্যক্তিগত তথ্য বিক্রি করে অর্থের পাহাড় গড়া এক্সমোড কোম্পানির ব্যাপারে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, তারা বিভিন্ন প্রতিরক্ষা ঠিকাদার ও ইউএস মিলিটারীর সহায়তাকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে অ্যাপ থেকে সরাসরি গ্রাহকদের অবস্থানগত তথ্য নিয়ে চড়ামূল্যে বিক্রি করে থাকে।

এক্সমোড কোম্পানির বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে মার্কিন সিনেটর রন ওয়াইডেন টেক নিউজ মাদারবোর্ডকে জানান, এক্সমোড কোম্পানিটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফোনগুলো থেকে সংগৃহীত তথ্য তাদের ইউএস মিলিটারী গ্রাহকদের কাছে বিক্রি করেছে।

রন ওয়াইডেন আরো বলেন, সেপ্টেম্বরে ডেটা ব্রোকার খ্যাত এক্সমোড কোম্পানির উকিলরা আমার অফিসে ফোন দিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফোনগুলো থেকে সংগৃহীত তথ্য ইউএস মিলিটারী গ্রাহকদের কাছে বিক্রি করার বিষয়টি নিশ্চিত করে।

তাছাড়া সিএনএনকে সাক্ষাতকার দেওয়ার সময় এক্সমোড কোম্পানির সিইও জশুয়া এন্টন বলেন, আমরা প্রতি মাসে আমেরিকার ভিতরে থাকা ২৫ মিলিয়ন ডিভাইস ট্র‍্যাক করে থাকি এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ল্যাটিন আমেরিকা ও এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চল সহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে প্রায় ৪০ মিলিয়ন ডিভাইস ট্র‍্যাক করে থাকি।

ঐসমস্ত ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান যাদের মাধ্যমে ব্যক্তিগত তথ্য ইউএস মিলিটারীর কাছে যায়, তাদের ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, আমরা কিছু নির্দিষ্ট ও গোপন প্রতিরক্ষা ঠিকাদারদের মাধ্যমে ইউএস মিলিটারীর কাছে লোকজনের ব্যক্তিগত তথ্য বিক্রি করে থাকি। তবে উচ্চ পর্যায়ে সংঘটিত চুক্তি ও নিরাপত্তার স্বার্থে সেই নির্দিষ্ট এবং গোপন প্রতিরক্ষা ঠিকাদার কারা তা জানাতে আমরা বাধ্য নই।

ব্যবহারকারী গ্রাহকদের উপর অ্যাপ কর্তৃক যে সমস্ত শর্তাদি ও গোপনীয়তা রক্ষার নামে ব্যক্তিগত তথ্য সংগৃহীত হয়ে থাকে সেই ব্যাপারে বার্কলে সেন্টার ফর ল অ্যান্ড টেকনোলজির পরিচালক ক্রিস হুফনগল টেক নিউজ মাদারবোর্ডকে বলেন, অ্যাপ্লিকেশনটির শর্ত তালিকায় গোপনীয়তার তথ্য প্রকাশ ও মার্কিন সেনাবাহিনীর কাছে তা বিক্রি করার বিষয়টিও যে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে তা যদি ব্যবহারকারী গ্রাহকরা জানতে পারে তবে তারা ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে পরবে। তাছাড়া যুক্তিসঙ্গতভাবে এই ধরনের পরিষেবার নির্ভরতা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে এই পরিষেবাকে সবাই অগ্রাহ্যই করবে।

তিনি আরো বলেন, পরিশেষে এটাই বুঝা যায়, যে কোনো গ্রাহক এটাই চাইবে যে, তার ব্যক্তিগত তথ্য যাতে মিলিটারীর কাজে ব্যবহৃত না হয়, যদিও নাকি সে কোম্পানির শর্তাদি পড়ে দেখে।

উল্লেখ্য, মাদারবোর্ডের প্রতিবেদনে দেখা গেছে যে ‘মুসলিম প্রো’ নামী জনপ্রিয় প্রেয়ার অ্যাপ যা পবিত্র কোরআন ও কোরআনের তিলাওয়াত সহ নিত্যদিনের ওয়াক্তিয়া নামাযের সুনির্দিষ্ট সময় এবং ব্যবহারকারীদের বর্তমান অবস্থানের প্রেক্ষিতে কেবলার সঠিক দিকনির্দেশ দিয়ে থাকে, তা গুগল প্লে স্টোর থেকে ৫০ মিলিয়নের উপর এবং অন্যান্য প্লাটফর্ম থেকে ৯৫ মিলিয়নের উপর ডাউনলোড হয়েছে।

এই অ্যাপটির কয়েকজন ব্যবহারকারীর সাথে কথা বলে টেক নিউজ ‘মাদারবোর্ড’ জানতে পারে, তাদের অবস্থানের তথ্য এই অ্যাপটি কিভাবে ব্যবহার করে তা তাদের সম্পূর্ণ অজানা।

মিডলইস্ট আই অবলম্বনে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *