রবিবার, মে ১৯, ২০২৪

চামড়া শিল্পে সিন্ডিকেটের গভীর কারসাজি ভেঙ্গে দিতে হবে: ইশা ছাত্র আন্দোলন

ইনসাফ | মাহবুবুল মান্নান


আসন্ন ঈদুল আযহার আগেই কুরবানির পশুর চামড়ার ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে দেশের চামড়াশিল্প ও দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য মিশকাতুল ইসলাম।

রবিবার (১৮ জুলাই) চট্টগ্রামের কেরানীহাট চত্বরে জেলা সভাপতি কাজী আবরার হানিফ মারুফের সভাপতিত্বে ও অর্থ ও কল্যাণ সম্পাদক আরফাত হোসাইনের সঞ্চালনায় এক মানববন্ধনে তিনি বলেন, আসন্ন কুরবানির ঈদের আগে আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সংগতি রেখে চামড়ার দাম নির্ধারণ ও সংঘবদ্ধ চক্রের হাত থেকে চামড়াশিল্পকে রক্ষা করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, কুরবানির সময় আসন্ন; অথচ সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলের কোনো তৎপরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। বিষয়টি অত্যন্ত হতাশা ও উদ্বেগের। কয়েক বছর ধরে একটি চক্র চামড়া খাতে নৈরাজ্য করে যাচ্ছে। ফলে বহু দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং দেশের এতিম ও গরীব জনগোষ্ঠী ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। চামড়ার বাজার নিয়ন্ত্রণ করে দেশের দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলোকে বাঁচাতে হবে। চামড়া শিল্প রক্ষা করা গেলে দেশের অর্থনীতি ও দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান উভয়টি উপকৃত হবে।

মিশকাতুল ইসলাম বলেন, চামড়া শিল্পে সিন্ডিকেটের গভীর কারসাজি এড়াতে আমাদের জাতীয় সম্পদ চামড়া শিল্পকে বাঁচাতে আগামী বছরগুলোর জন্য সূদূরপ্রসারী ভাবনার মাধ্যমে প্রেক্ষিত পরিকল্পনা নেওয়া উচিত। এজন্য ঈদুল আযহার পরবর্তী বিরাজমান আর্থ-সামাজিক ও পরিবেশগত অবস্থা সংরক্ষণ ও সুবিধাবঞ্চিত দুস্থ-এতিম শিক্ষার্থীদের দূরবস্থা নিরসনকল্পে চামড়া শিল্পের বিপর্যয় রোধে সবাইকে এগিয়ে আসা উচিত।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইসলামী যুব আন্দোলন চট্টগ্রাম জেলার (পূর্ব) সাধারণ সম্পাদক মাওলানা জাহেদুল হক, ইশা ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম জেলার [দক্ষিণ] সাধারণ সম্পাদক এম জুনাইদুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক আরিফুল ইসলাম, তথ্য গবেষণা ও প্রচার সম্পাদক মীর মুহিব্বুল্লাহ, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় সম্পাদক মুহাম্মাদ মনজুরুল ইসলাম প্রমুখ।

spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_img
spot_img