বুধবার, জুন ১৯, ২০২৪

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের জবাব প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য উন্নয়নের রঙ্গিন ফানুস : ইসলামী আন্দোলন

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেছেন, প্রতিটি গ্রামকে নাগিরক সুবিধার আওতায় আনা হবে প্রধানমন্ত্রীর এহেন বক্তব্যকে উন্নয়নের রঙ্গিন ফানুস উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, জনগণের মৌলিক ও নাগিরক অধিকার ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিন। তাহলেই কেবল দেশের রাজনৈতিক সংকট দূরীভূত হবে। সরকারী সম্পদ লুটপাট ও পাঁচার বন্ধ হবে, জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত হবে। সদ্য ঘোষিত বাজেটকে বেনজির হিসেবে উল্লেখ করে কালো টাকা সাদা করার সুবিধা থাকার সুযোগ থাকবে। অবৈধ সম্পদ আহোরনকে বৈধতা দেয়া হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব বলেন, এ ব্যবস্থার মাধ্যমে বেনজির-আজিজদের আইনের ফাঁক-ফোকর দিয়ে বাঁচিয়ে দেয়ার কৌশল রাখা হয়েছে। নতুন শিক্ষা কারিকুলাম প্রসঙ্গে ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব ইউনুছ আহমাদ বলেন, এ কারিকুলামের মাধ্যমে শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করা হয়েছে। সম্প্রতি অভিভাবকদের বক্তব্য, যে সরকার ৫ কোটি শিক্ষার্থীদের গিনিপিগ বানিয়ে পুতুল খেলা খেলছে। অভিভাবকগণ এ কারিকুলাম বাতিলের দাবীর প্রতি আমরা সমর্থণ জানাচ্ছি এবং দেশের বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর বোধ-বিশ্বাস ও মূল্যবোধকে সামনে রেখে কারিকুলাম তৈরি করতে হবে।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে পুরানা পল্টনস্থ আইএবি মিলনায়তনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, দলের প্রেসিডিযাম সদস্য আলহাজ খন্দকার গোলাম মাওলা, যুগ্ম মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক কেএম আতিকুর রহমান, কেন্দ্রীয় প্রচার ও দাওয়াহ সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ুম, দফতর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, শিক্ষা ও সংষ্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা মোহাম্মদ নেছার উদ্দিন, মাওলানা এবিএম জাকারিয়া, মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাকী।

মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, ঘোষিত বাজেটে জনগণের উপর নতুন করে দ্রব্যমূল্যের খড়গ বাড়ছে। নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ছে দ্রব্যমূল্যের বাজার। এতে সাধারণ মানুষ চরম হিমশিম খাচ্ছে। তিনি বলেন, দুর্নীতির টাকা ফিরিয়ে এনে জনকল্যাণে ব্যয় করলে নিত্যপণ্যের দাম কমবে।

ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, কোরবানীর চামড়ার ন্যায্য মূল্য নির্ধারণ করে চামড়া শিল্পকে বাঁচাতে হবে এবং এতিম, গরীব ও অসহায় মানুষের প্রতি ইনসাফ রক্ষার দাবী জানান।

spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_img
spot_img