রবিবার, জুলাই ১৪, ২০২৪

বাসায় ফিরেছেন খালেদা জিয়া; থাকবেন মেডিকেল বোর্ডের তত্ত্বাবধানে

১২ দিনের চিকিৎসা শেষে হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটে গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় পৌঁছান তিনি।

বিএনপির মিডিয়া ইউংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া চিকিৎসা শেষে সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটে গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় পৌঁছেছেন।

এদিকে খালেদা জিয়া বাসায় মেডিকেল বোর্ডের সার্বক্ষণিক তত্ত্বাবধানে থাকবেন বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন। পাশাপাশি মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা প্রতিদিনই পর্যায়ক্রমে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করবেন এবং প্রয়োজন হলে তাকে সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

জাহিদ হোসেন বলেন, গত রোববার মেডিকেল বোর্ডের সদস্যদের সঙ্গে আলোচনার পর বেগম খালেদা জিয়ার হার্টে পার্মানেন্ট পেসমেকার বসানোর সিদ্ধান্ত হয়। পেসমেকার লাগানোর পর আল্লাহর অশেষ মেহেরবানি, দেশবাসীর দোয়ায় তিনি মানসিকভাবে সবল ও সুস্থ আছেন। কিন্তু শারীরিকভাবে তিনি অত্যন্ত অসুস্থ। তার হার্টে তিনটি ব্লক ছিল। দুটিতে মাত্র রিং পরানো হয়েছে। তৃতীয়টা যেকোনো সময় বিপদের আশঙ্কা তৈরি করতে পারে। তার লিভারে সমস্যা রয়েছে। কিন্তু লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্টের কোনো সুযোগ পাওয়া যাচ্ছে না, সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার পরিবার এবং দলের পক্ষ থেকে বিদেশে চিকিৎসার এবং মুক্তির জন্য বারবার আবেদন করা হয়েছে। এ পর্যন্ত ৬ বার আবেদন করা হয়েছে। কোন অজানা কারণে বারবার সেই আবেদন খারিজ হয়েছে।

ডা. জাহিদ বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য দলের নেতাকর্মী এবং সংবাদকর্মীসহ যারা জনমত তৈরিতে ভূমিকা রেখেছেন, তাদের প্রতি তিনি (বেগম খালেদা জিয়া) এবং তার পরিবারের সদস্যরা কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। পাশাপাশি তার জন্য দোয়া করতে বলেছেন।

এর আগে বিকেল সাড়ে ৫টায় তিনি হাসপাতাল ত্যাগ করেন। এসময় খালেদা জিয়ার গাড়ি বহরের সঙ্গে দলীয় নেতাকর্মীরা স্লোগান দিতে দিতে বাসা পর্যন্ত আসেন।

গত ২৩ জুন খালেদা জিয়ার হৃদযন্ত্রে পেসমেকার বসানো হয়। দেশি বিদেশি চিকিৎসকদের সমন্বয়নে গঠিত মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শে বিএনপির সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর চিকিৎসা চলছে।

গত ২১ জুন মধ্যরাতে খালেদা জিয়া শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে তাকে রাজধানীর বসুন্ধরার এভারকেয়ার হাসপাতালে সিসিইউতে ভর্তি করা হয়। গত বছরের ২৭ অক্টোবর লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত খালেদা জিয়ার রক্তনালিতে অস্ত্রোপচার করতে যুক্তরাষ্ট্র থেকে আসেন ৩ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক।

৭৯ বছর বয়সী খালেদা জিয়া ডায়াবেটিস, আর্থারাইটিস, হৃদরোগ, ফুসফুস, লিভার, কিডনিসহ বিভিন্ন জটিল রোগে ভুগছেন বলেও বিএপির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_img
spot_img