মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪

দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের মুঘল গার্ডেনের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে গৌতম বুদ্ধ শতবর্ষী উদ্যান

সম্প্রতি ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ভবন মুঘল গার্ডেনের নাম পরিবর্তন করে ‘অমৃত উদ্যান’ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এবার দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের উত্তর ক্যাম্পাসে অবস্থিত ‘মুঘল গার্ডেনটির’ নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে গৌতম বুদ্ধ শতবর্ষী উদ্যান। এছাড়াও গৌতম বুদ্ধের একটি মূর্তি অন্তর্ভুক্ত করার অনুমতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

গত ২৭ জানুয়ারী দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় নামটি পরিবর্তন করে। তাদের দাবি, বাগানটিতে কোন মুঘল নকশা নেই।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন প্রতিনিধি বলেছেন, “প্রায় একই সাথে নাম পরিবর্তনগুলি কেবল একটি কাকতালীয় বিষয়। বাগান কমিটির সাথে ব্যাপক আলোচনার পরেই এই সিদ্ধান্তটি নেয়া হয়েছে।”

মুঘলরা বাগানের ব্যাপক প্রশংসা করত। ঐতিহাসিক গ্রন্থ বাবরনামায় জহির উদ্দিন মোহাম্মদ বাবর বলেছিলেন, তার প্রিয় বাগান হল ‘ফার্সি চর বাঘ শৈলী’। আক্ষরিক অর্থে যাকে চারটি বলা হয়। এছাড়াও তারা এ বাগান গুলিকে মুঘলরা নানা রকম ফুলের গাছ দিয়ে সজ্জিত করত যাতে সেখানে মানুষ প্রকৃতির সমস্ত উপাদানের সাথে পুরোপুরি সহাবস্থান করতে পারে।

উল্লেখ্য; এর পূর্বেও উগ্র হিন্দুত্ববাদী মোদী সরকার মুসলিমদের নামের সাথে মিল থাকায় একাধিক স্থান ও রেল স্টেশনের নাম পরিবর্তন করে দিয়েছেন। মুঘলসরাই স্টেশনের নাম পরিবর্তন করে হয়ে গেছে দীনদয়াল উপাধ্যায় স্টেশন। এলাহাবাদারে নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে প্রয়াগরাজ।

সূত্র: মুসলিম মিরর

spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_img
spot_img