বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০২২

নাটোরে মাদরাসা শিক্ষককে মারধর; ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

মাদ্রাসার সভাপতি পরিবর্তন নিয়ে দ্বন্দ্বে নাটোরে সদরের হয়বতপুর গোলাম ইয়াছিনিয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসার এক শিক্ষককে মারধর করেন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা নুরুজ্জামান কালু।

বুধবার (৩ আগস্ট) রাত অভিযুক্ত চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা হামলার সাথে জড়িত সকলকে গ্রেফতারের দাবিতে মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে মানববন্ধন করে।

পুলিশ জানিয়েছে, হয়বতপুর গোলাম ইয়াছিনিয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসার কমিটি গঠন নিয়ে দ্বন্দ্বে বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মাদ্রাসায় যান স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান কালু। সঙ্গে তার ছেলে জয়সহ ১২-১৫ জন অনুসারী ছিল। মাদ্রাসায় গিয়ে তারা অধ্যক্ষকে খুঁজতে থাকেন এবং বিভিন্ন ক্লাস রুমে ঢুকে ছাত্রছাত্রী শিক্ষকসহ বিভিন্ন বিষয় ভিডিও করতে থাকেন।

মাদ্রাসার ইংরেজি বিষয়ের সহকারী অধ্যাপক জাফর বরকত আগতদের সাথে অধ্যক্ষের অবর্তমানে কথা বলতে থাকেন। একপর্যায়ে মাদ্রাসা মাঠেই তাকে প্রকাশ্যে মারধর শুরু করে চেয়ারম্যানের অনুসারীরা। পরে দ্বিতীয় দফায় স্থানীয় লক্ষীপুর খোলাবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে নিয়ে তাকে আটকে বেধড়ক পেটানো হয়।

ভুক্তভোগী মাদ্রাসা শিক্ষক জাফর বরকত বলেন, চেয়ারম্যান নিজেই চৌকিদারের লাঠি নিয়ে তাকে বেধড়ক পেটান। মাদ্রাসার অন্য শিক্ষক ও ছাত্ররা ইউনিয়ন পরিষদে তাকে ছাড়িয়ে আনতে গেলে তাদের ভয় দেখিয়ে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। পরে ৯৯৯ এ খবর দিলে নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা নিজে গিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। এবং নাটোরের জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন।

spot_img
spot_img

সর্বশেষ

spot_img