রবিবার, আগস্ট ১, ২০২১

ইসরাইলের সঙ্গে বন্ধুত্ব আমাদের নিরাপত্তা দেবে: বাহরাইন

বাহরাইনের রাজধানী মানামায় তিন দিনের ১৬তম মানামা সম্মেলন শেষ হল। নিরাপত্তা বিষয়ক আন্তর্জাতিক বেশ কয়েকটি সংস্থার প্রতিনিধি এবং কয়েকটি আরব দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের উপস্থিতিতে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

কিছু শ্লোগানের মধ্যদিয়ে এ সম্মেলন শেষ হয়। সৌদি আরব ও বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা তাদেরই আগ্রাসন ও হস্তক্ষেপের কারণে সৃষ্ট ইয়েমেনে মানবিক বিপর্যয়ের বিষয়টি এড়িয়ে গিয়ে এ অঞ্চলে শান্তি, নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠার কথা বলেন। এমন সময় তারা এ আহ্বান জানালেন যখন সমগ্র পশ্চিম এশিয়ায় শান্তি ও নিরাপত্তাহীনতা সৃষ্টিতে সৌদি আরব মুখ্য ভূমিকা পালন করেছে। এ প্রসঙ্গে ইয়েমেনের বিরুদ্ধে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের ৬ বছর ধরে চলা আগ্রাসন, কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করা ও এ দেশটির ওপর সর্বাত্মক নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা উল্লেখ করা যায়।

বাহরাইনে অনুষ্ঠিত এ সম্মেলনের আরেকটি লক্ষ্য ছিল দখলদার ইহুদিবাদী সন্ত্রাসীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের সঙ্গে আপোশ প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য আরব দেশগুলোর উদ্যোগের প্রতি সমর্থন জানানো।

বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল লতিফ আল যিয়ানি আবারো আগ্রাসী ইহুদিবাদী সন্ত্রাসীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের সঙ্গে বন্ধুত্ব স্থাপনকে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর নিরাপত্তার জন্য কল্যাণকর বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি দাবি করেন, মানামা ইসরাইল-ফিলিস্তিন সংকট নিরসনের চেষ্টা করছে। এমন সময় তিনি এসব দাবি করলেন যখন সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন ইসরাইলের সঙ্গে কূটনৈতিক কম্পর্ক স্থাপনের পর ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরাইলি সন্ত্রাসীদের বর্বর আগ্রাসন ও সহিংসতার মাত্রা বহুগুণে বেড়েছে।

ইসরাইলি অত্যাচারের ফল হিসেবে গত সপ্তাহে এক ফিলিস্তিনি শিশু শহীদ হয়েছে এবং যন্ত্রাংশের অভাবে গাজার একটি গুরুত্বপূর্ণ গবেষণাগার বন্ধ করে দিতে হয়েছে।

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ