বিকি বিলের লাল শাপলা ডাটাসহ আহরণে প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা

সুনামগঞ্জ তাহিরপুরে পর্যটন সম্ভাবনাময় লাল শাপলার বিকি বিলের সৌন্দর্য রক্ষায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হয়েছে।

সম্প্রতি বিকি বিলে স্থানীয় কিছু মানুষ গরু মহিষের খাদ্য হিসাবে লাল শাপলা ডাটাসহ তুলে নিচ্ছিলেন। যার ফলে বিকি বিলের সৌন্দর্য নষ্ট হচ্ছে এমন সংবাদ প্রকাশিত হলে বিকি বিলের লাল শাপলা ডাটাসহ আহরণে প্রশাসনের এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

রোববার (১৮ অক্টোবর) উপজেলার বড়দল উত্তর ইউনিয়নের কাশতাল গ্রামের পাশে পর্যটনের অপার সম্ভাবনাময় লাল শাপলার বিকি বিলের সৌন্দর্য রক্ষা ও জনস্বার্থে উপজেলা প্রশাসন পক্ষ থেকে সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত মাইকিং করা হয়।

মাইকিংয়ে বলা হয়- সম্প্রতি স্থানীয় কিছু ব্যক্তি কর্তৃক গরু-মহিষের খাদ্য হিসাবে পর্যটন সম্ভাবনাময় এলাকা বিকি বিলের শাপলা ফুল ডাটাসহ তুলে নেওয়ার কারণে বিলের সৌন্দর্য হানি হচ্ছে। এই অবস্থায় বিকি বিলের সৌন্দর্য রক্ষার্থে ও জনস্বার্থে বিকি বিল থেকে ডাটাসহ শাপলা আহরণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল। এই আদেশ অমান্যকারীদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে।

জানা যায়, বিকি বিলটি উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের কাশতাল এলাকায় অবস্থিত লাল শাপলার বিকি বিল হলহলিয়ার চক ও দিঘলবাঁক মৌজার প্রায় ১৪.৯৫ একর জায়গা নিয়ে গঠিত। সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ গত বছর ১২ অক্টোবর ২০১৯ সালে লাল শাপলার বিকি বিলকে উপজেলার নতুন পর্যটন এলাকা হিসাবে ঘোষণা করেছিলেন। পর্যটকদের ভ্রমণের জন্য নতুন এলাকা হিসেবে বিকি বিলে একটি সাইনবোর্ড টানিয়ে দেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার পদ্মা সন সিংহ জানান, প্রকৃতির সৌন্দর্যের অংশ বিকি বিল, যেখানে লাল শাপলার চোখধাঁধানো দৃশ্য দেখে মুগ্ধ হন পর্যটক ও দর্শনার্থীরা প্রতি বছর। কিছু লোক শাপলা ফুল ডাটাসহ তুলে নেওয়ার কারণে বিলের সৌন্দর্য নষ্ট হচ্ছে। তাই বিকি বিলের সৌন্দর্য রক্ষার্থে সবাইকে সর্তকতা অবলম্বন করতেই মাইকিং করে জানানো হয়েছে। যাতে করে কেউ শাপলা ফুল ডাটাসহ তুলে না নেয়। নির্দেশনা অমান্যকারীদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *