বৃহস্পতিবার, মে ১৯, ২০২২

মুসলিম হওয়ার কারণে ব্রিটেনে মন্ত্রিত্ব কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ

কেবল মুসলিম পরিচয়ের কারণে যুক্তরাজ্যে এক আইনপ্রণেতাকে মন্ত্রিত্ব থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। দেশটির এক নারী আইনপ্রণেতা অভিযোগ করেছেন, শুধুমাত্র মুসলিম হওয়ার কারণে তাকে বর্তমান ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ সরকারের মন্ত্রিত্ব থেকে বের করে দিয়েছে বরিস জনসনের নেতৃত্বাধীন সরকার।

রোববার (২৩ জানুয়ারি) ব্রিটেনের সংবাদপত্র সানডে টাইমসের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

ব্রিটিশ ওই নারী এমপির অভিযোগ, তার মুসলিম বিশ্বাস দফতরের অন্য সহকর্মীদের মধ্যে অস্বস্তির সৃষ্টি করেছিল বলে তাকে জানানো হয়েছিল।

রয়টার্স বলছে, কেবলমাত্র ধর্মীয় পরিচয়ের কারণে মন্ত্রিত্ব হারানো ব্রিটেনের মুসলিম ওই নারী আইনপ্রণেতার নাম নুসরাত গনি। ৪৯ বছর বয়সী এই আইনপ্রণেতা যুক্তরাজ্যের জুনিয়র পরিবহন মন্ত্রী ছিলেন এবং ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তাকে মন্ত্রিত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়।

সানডে টাইমস পত্রিকার কাছে নুসরাত গনি অভিযোগ করেন, মন্ত্রিত্ব হারানোর পর ব্রিটিশ পার্লামেন্টের হুইপ তাকে জানিয়েছিলেন যে, তার মুসলিম পরিচয়ই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়ার পেছনে নিয়ামক হিসেবে কাজ করেছে।

এদিকে নুসরাত গনির এই অভিযোগের পর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের ডাউনিং স্ট্রিটের দফতর থেকে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি। কিন্তু, ব্রিটিশ সরকারের চিফ হুইপ মার্ক স্পেন্সার জানিয়েছেন, নুসরাত গনির অভিযোগের কেন্দ্রবিন্দুতে তিনিই রয়েছেন।

সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় তিনি বলেন, এই অভিযোগগুলো সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং এগুলোকে আমি মানহানিকর বলে মনে করি। আমার নামে যেগুলো বলা হচ্ছে, সেসব কথা আমি কখনোই বলিনি।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img