গর্ভবতী হাতির মৃত্যু নিয়ে মায়াকান্না, কারাবন্দী অন্তঃসত্ত্বা তরুণীর বিষয়ে নিশ্চুপ!

ভারতের মুসলিম বিরোধী নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করায় সন্ত্রাসবাদ দমন আইনে গ্রেপ্তার জামিয়ার অন্তঃসত্ত্বা ছাত্রী সফুরা জারগার জামিনের আবেদন তৃতীয়বারের মতো খারিজ করে দিয়েছে দেশটির আদালত।

বৃহস্পতিবার তৃতীয়বারের জন্য তার জামিনের আবেদন খারিজ করে দেয় দিল্লির পাতিয়ালা হাউস আদালত।

গর্ভবতী হাতির মৃত্যু নিয়ে সবাই যখন সরব, ঠিক তখন কারাগারের অন্ধকারে থাকা জামিন না পাওয়া তরুণীর বিষয়ে কেউ কোন কথা বলছে না।

গত এপ্রিল মাসে সন্ত্রাসবাদ দমন আইনের ভিত্তিতে অন্তঃসত্ত্বা ২৭ বছর বয়সী সফুরাকে গ্রেপ্তার করা হয়ে। তখন তিনি ২ মাসের গর্ভবতী।

জানুয়ারি মাসে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক সফুরা জারগার। এর প্রায় চার মাস পরে সন্ত্রাসবাদী দমন আইন মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছিল তাকে। তার বিরুদ্ধে উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে সহিংসতার ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়েছে।

এখন ২১ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা সফুরা। পলিসিস্টিক ওভারিয়ান ডিসঅর্ডারেও ভুগছেন তিনি।

মানবিকতার ভিত্তিতেই জামিনের আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু তৃতীয়বারও জামিনের আবেদন খারিজ করে দেয়া হল।

মহামারী করোনাভাইরাসের সময় জামিন না দিয়ে অন্তঃসত্ত্বা মহিলাকে কারাগারে হাজার হাজার বন্দির সাথে রাখার বিষয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *