সীমান্ত ঘেঁসে উড়ছে চীনা যুদ্ধবিমান, উদ্বিগ্ন ভারত

ভারত ও চীনের মধ্যে উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছে। লাদাখে সীমান্তের কাছে চীনের সেনাবাহিনী ভারি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রস্তুত আছে। পশ্চিম লাদাখ সীমান্তের কয়েক কিলোমিটারের মধ্যে দিয়ে ঘোরাফেরা করছে চীনের যুদ্ধবিমান।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, পশ্চিম লাদাখের কাছাকাছি চীনের বিমান বাহিনীর এয়ার বেসে হামলার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে ১০ থেকে ১২টি যুদ্ধবিমান। হোটান ও গারগুনসা নামে দুটি এয়ার বেসে তৈরি রাখা হয়েছে ফাইটার জেটগুলো।

একটি সূত্র জানাচ্ছে যে, সেখানে জে-৭ ও জে-১১ ফাইটার এয়ারক্রাফট রয়েছে যেগুলো ভারতীয় সীমান্তের ৩০ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত পৌঁছে যাচ্ছে। যদিও এই দূরত্বকে খুব বিপজ্জনক বলে মনে করা হচ্ছে না ,তবুও ভারতীয় সেনাবাহিনী সতর্ক দৃষ্টি রাখছে। যেকোনো মুহূর্তে সীমান্তের একেবারে ঘাড়ের কাছে চলে আসতে পারে চীনের ওইসব যুদ্ধবিমান।

মে মাসের শুরুতেই পশ্চিম লাদাখের কাছে যুদ্ধবিমান পাঠিয়েছিল ভারত। সেই সময় ভারতের যুদ্ধবিমান ও চীনের হেলিকপ্টার আকাশে একেবারে কাছাকাছি চলে এসেছিল।

লাদাখের কাছে হোটান নামে ওই এয়ারবেসে চীনের সঙ্গে যৌথ মহড়া চালায় পাকিস্তান। তাই ওই এয়ারবেসের ওপর প্রায় এক বছর ধরে ভারতীয় বিমান সেনাদের বিশেষ নজর রয়েছে।

গত ২৫ দিন ধরে লাদাখে মুখোমুখি ভারত-চীন সেনা বাহিনী। বাড়ছে তিক্ততা। এমন পরিস্থিতিতে পূর্ব লাদাখের দুই প্রান্তে ভারী যুদ্ধ সামগ্রী, অস্ত্র, আর্টিলারি গান এবং কমব্যাট ভেহিকল মজুত রাখার কাজ শুরু হয়েছে। এমন খবরই জানানো হয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে।

এদিকে, দু’দেশের মধ্যে সামরিক এবং কূটনৈতিক স্তরে আলোচনা করে এই সমস্যার সমাধান খোঁজার চেষ্টা চলছে। এমন অবস্থায় সীমান্তে সমরসজ্জা বাড়ছে। বিতর্কিত এই অঞ্চলে আকাশ পথে কড়া নজরদারি চালাচ্ছে ভারতীয় বিমনাবাহিনী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *