ভোলায় স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ: গ্রেপ্তার ২

জেলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার সফিকুল ইসলাম লালমোহন উপজেলার কালমা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের লাল মিয়া ঢালীর ছেলে এবং মো. নাগর মাল একই উপজেলার চরলক্ষী গ্রামের হাবু উল্লাহ মালের ছেলে।

এ ঘটনায় শুক্রবার ভুক্তভোগীর মা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার সূত্রে জানা যায়, ভোলার লালমোহন উপজেলার ১৩ বছর বয়সী এক স্কুলছাত্রীর সাথে সফিকুল ইসলামের পরিচয় ছিল। গত বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে ওই ছাত্রীকে তার বাড়ি থেকে বিয়ের আশ্বাস দেখিয়ে সফিকুল ইসলাম ও নাগর মাল অপহরণ করে নিয়ে আসে। তারা স্কুলছাত্রীকে বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের পদ্মামনসা গ্রামের সবুজ হাজীর সুপারির বাগানের উত্তর পাশের পুকুর পাড়ে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে তাকে ভোলা-চরফ্যাশন আঞ্চলিক মহাসড়ক সংলগ্ন সরকারি আবাসন প্রকল্পের সামনে ফেলে রেখে সফিক ও নাগর পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে রাত পৌনে ১২টার দিকে বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশের একটি টিম ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠায়।

বোরহানউদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাজহারুল আমিন জানান, ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হওয়ার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুই ধর্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা উভয়ই অপহরণ ও ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আদলতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সূত্র: ইউএনবি

Previous post কারো অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলানোর অধিকার ভারতের নেই: শ্রীলঙ্কা
Next post গৃহবধূর লাশ হাসপাতালে রেখে পালিয়েছে স্বামী, শাশুড়ি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *