আর্মেনিয় দখলদারিত্বের অবসান না হলে যুদ্ধবিরতি ব্যর্থ হতে বাধ্য: তুরস্ক

তুরস্ক বলেছে, নাগার্নো-কারাবাখ অঞ্চল থেকে যদি আর্মেনিয়া সেনা প্রত্যাহার না করে তাহলে যে যুদ্ধবিরতি এবং শান্তির প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে তা ব্যর্থ হতে বাধ্য।

শুক্রবার (৯ অক্টোবর) তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগানের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিন এ মন্তব্য করেন।

এর আগে রাশিয়া ঘোষণা করে যে, যুদ্ধবিরতি নিয়ে আলোচনা করার জন্য আর্মেনিয়ায় এবং আজারবাইজান সোমবার মস্কোয় বৈঠকে বসতে রাজি হয়েছে। চলমান সংঘাত বন্ধের লক্ষ্য নিয়ে আমের্নিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছে ফ্রান্স, রাশিয়া এবং আমেরিকা।

এ প্রসঙ্গে ইব্রাহিম কালিন বলেন, যদি শুধুমাত্র তারা শান্তি এবং যুদ্ধ বিরতির প্রচেষ্টা চালায় এবং সেই লক্ষ্যে কাজ করে তাহলে গত ৩০ বছর ধরে যা ঘটে চলেছে তারই পুনরাবৃত্তি ছাড়া আর কিছুই হবে না। তিনি বলেন, আর্মেনিয় দখলদারিত্বের অবসান ঘটানোর ব্যাপারে যদি বিস্তারিত পরিকল্পনা নিয়ে কাজ না করা হয় তাহলে এই শান্তি প্রচেষ্টা ব্যর্থ হবে -এটি প্রায় অবধারিত।

অর্গানাইজেশন ফর সিকিউরিটি অ্যান্ড অপারেশন ইন ইউরোপ-এর সহযোগিতায় আমেরিকা, ফ্রান্স এবং রাশিয়া গত ৩০ বছর ধরে নাগার্নো-কারাবাখ নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যকার দ্বন্দ্ব মীমাংসার চেষ্টা করে আসছে কিন্তু তাদের সে প্রচেষ্টা সফল হয়নি। তুরস্ক স্পষ্ট বলছে, গত ৩০ বছর ধরে এই গ্রুপ যে প্রচেষ্টা চালিয়েছে প্রকৃতপক্ষে তা কোনো কার্যকরী কিছুই ছিল না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *