পাকিস্তান থেকে ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত বহিষ্কারের দাবি জোরালো হচ্ছে

বিশ্ব মানবতার মুক্তিদূত মহানবী হজরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে নিয়ে ফ্রান্সে অবমাননাকর কার্টুন ছাপানোর প্রতিবাদে ইসলামাবাদে নিযুক্ত ফরাসি রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কারের দাবি জোরালো হচ্ছে পাকিস্তানে। বাকস্বাধীনতার নামে এই জঘন্য অবমাননাকর কার্টুন ছাপানোকে পাকিস্তানের জনগণ মুসলিমবিদ্বেষ বলে মনে করছেন।

শার্লি এবদো নামে ফ্রান্সের একটি ম্যাগাজিন বছরের পর বছর এ ধরনের অবমাননাকর কার্টুন ছেপে আসছে কিন্তু এবার এ ধরনের ঘটনা সেই ম্যাগাজিনে কার্টুন প্রকাশের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই বরং ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরন নিজেই ইসলামের বিরুদ্ধে বিদ্বেষমূলক বক্তব্য দিয়েছে এবং বাকস্বাধীনতার নামে এমন কার্টুন প্রকাশ অব্যাহত থাকবে বলে সে ঘোষণা করেছে।

এ অবস্থায় পাকিস্তানের জনগণ প্রধানমন্ত্রী ইমরান ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন সরকারের কাছে জোর দাবি জানিয়েছে যে, ইসলামাবাদ থেকে ফরাসি রাষ্ট্রদূত যত দ্রুত সম্ভব বহিষ্কার এবং ফ্রান্সের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে।

পাশাপাশি তারা ফ্রান্সের সব ধরনের পণ্য বয়কট করার আহবান জানিয়েছেন। প্রতিবাদের অংশ হিসেবে পাকিস্তান জামায়াতে ইসলামীর মহিলা বিভাগ থেকে একটি বিক্ষোভ সমাবেশেরও আয়োজন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান যদিও ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরনকে ইসলামভীতি ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য অভিযুক্ত করে বক্তব্য রেখেছেন তবে তাকে পাকিস্তানের জনগণ যথেষ্ট মনে করছেন না। তারা বলছেন, পাকিস্তানে ফ্রান্সের দূতাবাস বন্ধ করে দিতে হবে।

পাকিস্তানের জনগণ বিশ্বাস করে যে, ফ্রান্স যে অবস্থান নিয়েছেন সেটি রাজনৈতিক এবং ইউরোপের দেশগুলোতে যে দ্রুতগতিতে ইসলাম ছড়িয়ে পড়ছে তাতে ভীত হয়ে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাকরন এমন বক্তব্য দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *