বাবরী মসজিদ রায়ের মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে ভারতে ন্যায়বিচার নেই: মাহমুদ মাদানী

১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর ভারতের অযোধ্যার ঐতিহাসিক বাবরী মসজিদকে শহীদ করে দেয় হিন্দু সন্ত্রাসীরা। ওই মামলার মূল ইন্দনদাতা উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের ভারতীয় আদালতের বেকসুর খালাস দেওয়ার ঘটনায় মুসলিম বিশ্ব থেকে প্রতিবাদ উঠে। সেই ধারাবাহিকতায় প্রতিবাদ জানিয়েছেন ভারতের জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মাহমুদ মাদানী।

তিনি বলেন, বাবরী মসজিদে হামলাকারীদের উপযুক্ত শাস্তি না হওয়া অপরাধীদেরকে আরও উৎসাহ যোগাবে এবং সংখ্যালঘুদের মনে শঙ্কা ও আদালতের প্রতি তাদের অনাস্থা তৈরি করবে। এই রায়ে বিশ্ব দরবারে প্রমাণ করেছে, ভারতে ন্যায়বিচার নেই।

মাহমুদ মাদানী বলেন, সিবিআই আদালতের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করা হবে এবং দেশের সাধারণ স্বার্থ এবং ন্যায়বিচারের নীতিমালা বিবেচনা করে এই সিদ্ধান্তের ফলে যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এবং হবে তার ক্ষতিপূরণও চাওয়া হবে।

তিনি বলেন, দীর্ঘ ২৮ বছর প্রতীক্ষার পরে বিশেষ সিবিআই আদালত বাবরী মসজিদে হামলায় জড়িত দোষীদের বিচারের আওতায় না এনে আশ্চর্যজনকভাবে খালাস করে দিয়েছে। এই সিদ্ধান্ত অত্যন্ত করুণ এবং ন্যায়বিচারের পরিপন্থী। আদালতের এই রায়ে যেভাবে প্রমাণ ও সত্যকে উপেক্ষা করা হয়েছে এবং দোষীদের লজ্জাজনক ও অপরাধমূলক কর্ম প্রকাশ্যে আসার পরও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না দিয়ে তাদেরকে বেকসুর খালাস করা হয়েছে, এর নজির আমরা ইতিহাসে দেখতে পাই না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *