রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১

যেকোনো সময় দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হওয়ার আশঙ্কা আওয়ামী লীগের

যেকোনো সময় দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হওয়ার শঙ্কায় নেতা-কর্মীদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

দেশ ও সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে বলে তাদেরকে বার্তা দেয়া হয়েছে। বিএনপি-জামায়াত এ নিয়ে যড়যন্ত্রে লিপ্ত বলে জানানো হয়েছে।

দলটির পক্ষ থেকে নেতা-কর্মীদের আরো বলা হয়, বিএনপি-জামায়াত অবৈধ পথে চোরাগলি দিয়ে ক্ষমতায় আসার জন্য ষড়যন্ত্রের অলিগলি খুঁজে বেড়াচ্ছে। দুঃস্বপ্নে তারা বিভোর হয়ে আছেন। গণবিরোধী ও দেশবিরোধী কোনো ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হলে দেশের জনগণকে সঙ্গে নিয়েই তার দাঁতভাঙ্গা জবাব দেয়ার জন্য প্রস্তুত থাকার কথা বলা হয়েছে।

গতকাল বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলী, দলের ঢাকা মহানগর শাখা এবং সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব নির্দেশনা দেয়া হয়। বৈঠকে উপস্থিত নেতারা বলেন, সারা দেশে সাংগঠনিক তৎপরতা বাড়ানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বিশেষ করে রাজধানী ঢাকার কমিটিগুলোকে ঐক্যবদ্ধভাবে দলীয় কর্মসূচি পালনের কথা বলা হয়েছে।

এদিকে আওয়ামী লীগের গতকালের বৈঠকের জন্য পরপর দু’টি প্রেস রিলিজ পাঠানো হয় গণমাধ্যমে। প্রথম প্রেস রিলিজে বলা হয়, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ-এর সম্পাদকমণ্ডলীর সঙ্গে সহযোগী সংগঠনসমূহের এক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হবে। এক ঘণ্টা পরেই সংশোধিত দ্বিতীয় প্রেস রিলিজে বলা হয়, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ-এর সম্পাদকমণ্ডলীর সঙ্গে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনসমূহের এক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হবে।

দলের নেতাকর্মীরা জানান, রাজধানী ঢাকার কমিটিগুলোকে আরো বেশি তৎপর করতে বৈঠকে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগকে যুক্ত করা হয়। মূলত নেতা-কর্মীদের সতর্কবার্তা পৌঁছে দিতে এ উদ্যোগ।

বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখলের গভীর ষড়যন্ত্রের তথ্য উদ্‌ঘাটন করেছে গোয়েন্দা সংস্থা। যা ইতিমধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। বিএনপি-জামায়াত জোট কখনোই জনগণের ইচ্ছার প্রতিনিধিত্ব করতে চায় না। সর্বদাই তাদের ষড়যন্ত্রের রাজনীতি। তাদের আস্থা স্বাধীনতাবিরোধী ও দেশবিরোধী অপশক্তিতে। আওয়ামী লীগ এদেশের মানুষের আবেগ ভালোবাসা আশা-আকাঙ্খা ধারণ করে। কাজে-কর্মে জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটায়। আওয়ামী লীগ কখনো ষড়যন্ত্রের রাজনীতি করে না। ষড়যন্ত্রের রাজনীতি বরদাস্ত করে না। কিন্তু বারে বারে আওয়ামী লীগই ষড়যন্ত্রের শিকার হয়।

তিনি বলেন, আমরা বিএনপি নেতৃবৃন্দের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলতে চাই গণবিরোধী ও দেশবিরোধী কোনো ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হলে দেশের জনগণকে সঙ্গে নিয়েই তার দাঁতভাঙ্গা জবাব দিতে প্রস্তুত আওয়ামী লীগ। দলীয় সভাপতির ৭৩তম জন্মবার্ষিকীতে আমরা এ শপথ গ্রহণ করছি।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, ড. আব্দুর রাজ্জাক ও এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ ও ডা. দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বি এম মোজাম্মেল হক ও আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য আনোয়ার হোসেন, শাহাবুদ্দিন ফরাজীসহ অন্যরা। এছাড়া ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর ও দক্ষিণসহ সহযোগী সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে বৈঠকে দলের সাংগঠনিক তৎপরতা বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন ওবায়দুল কাদের। ২১তম জাতীয় সম্মেলনের আগে-পরে ৩১টি সাংগঠনিক জেলার কাউন্সিল শেষ হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, করোনা মহামারিতে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের একটু দেরি হয়েছে। তবে অধিকাংশ পূর্ণাঙ্গ কমিটি কেন্দ্রীয় দপ্তরে জমা পড়েছে। আমি একটি বিষয় পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, কমিটি গঠনে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সভায় আমাদের নেত্রী যে নির্দেশনা দিয়েছেন, সেই নির্দেশনা মেনেই পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে হবে। দলের দুঃসময়ে ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করতে হবে। হঠাৎ করে কেউ দলে এলেই তাকে নেতা বানাতে হবে এমন কোনো কথা নেই। আর সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে কোনো অবস্থাতেই অনুপ্রবেশের সুযোগ দেয়া হবে না। এ বিষয়ে আমি আবারও নেত্রীর নির্দেশ আপনাদের স্মরণ করিয়ে দিচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, আটটি বিভাগের জন্য আটটি টিম সাংগঠনিকভাবে প্রস্তুত করে আমরা নেত্রীর কাছে জমা দিয়েছি। তিনি অনুমোদন দিলে এই টিমগুলো আটটি বিভাগে আমাদের সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করবে।

তিনি আরও জানান, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভা আগামী ৩রা অক্টোবর গণভবনে আওয়ামী লীগ সভাপতির সভাপতিত্বে আহ্বান করা হয়েছে।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img