বাংলাদেশ-চীন যৌথ বিদ্যুৎ কেন্দ্র পায়রা পুরোদমে চালুর অপেক্ষায়

বাংলাদেশ ও চীনের যৌথ নির্মিত পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলায় অবস্থিত কয়লা চালিত ১,৩২০ মেগাওয়াট পায়রা বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি পুরোপুরি চালুর জন্য প্রস্তুত।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিটটি গত তিন মাসে ৬৬০ মেগাওয়াটের বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদনের ক্ষমতা অর্জন করেছে। এখন এটি বাণিজ্যিক উৎপাদনে যেতে প্রস্তুত। খবর ইউএনবি’র।

বাংলাদেশ-চীন পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড (বিসিপিসিএল)-এর প্রকল্প পরিচালক শাহ আব্দুল মাওলা বলেন, দ্বিতীয় ইউনিট প্রস্তুত। আমরা শিগগিরই এর অপারেশন শুরু করার জন্য রাষ্ট্রায়ত্ব পাওয়ার বাংলাদেশ ডেভলপমেন্ট বোর্ডের (পিবিডিবি) কাছে লিখবো।

পিবিডিবি হলো রাষ্ট্রায়ত্ব নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি বাংলাদেশ লি. (এনডব্লিউপিজিসিএল) ও চায়না ন্যাশনাল মেশিনারি ইমপোর্ট অ্যান্ড এক্সপোর্ট কর্পোরেশনর একটি যৌথ কোম্পানি। উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে পিবিডিবি ২ বিলিয়ন ডলারের এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

প্রায় পাঁচ মাস পরীক্ষামূলক চালনার পর পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রথম ইউনিট গত মে মাসে বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু করে।

দুটি ইউনিট একত্রে চালানোর অনুমতি পাওয়া গেলে এগুলো যৌথভাবে ১৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে। এতে দেশের বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষেত্রে একটি নতুন মাইলফলক স্থাপিত হবে। বাংলাদেশে এ পর্যন্ত কোন একক বিদ্যুৎ ইউনিট থেকে সর্বোচ্চ ৪৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *