বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১

পুলিশ হেফাজতে মারা যাওয়া রায়হানের লাশ কবর থেকে তোলা হবে

সিলেট নগরীর বন্দরবাজার ফাঁড়িতে মারা যাওয়া যুবক রায়হান আহমদের লাশ কবর থেকে তোলা হবে।

বুধবার (১৪ অক্টোবর) দুপুরে গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ খালেদুজ্জামান।

তিনি জানান, পুনরায় ময়না তদন্তের জন্য নিহত রায়হান আহমদের লাশ কবর থেকে তোলার অনুমতি দিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

এর আগে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিলেট মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) বাতেন পুনরায় ময়না তদন্তের জন্য রায়হানের লাশ কবর থেকে উত্তোলনের অনুমতি চেয়ে জেলা প্রশাসকের নিকট আবেদন করেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পিবিআই) মোহাম্মদ খালেদুজ্জামান আরও জানান, পূর্বে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই বাতেনের আবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসক অনুমতি প্রদান করে একজন ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করেছেন। পরবর্তীতে ম্যাজিস্ট্রেটের সাথে কথা বলে মৃত রায়হানের লাশ কবর থেকে উত্তোলনের ব্যাপারের সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এর আগে বুধবার দুপুরে পিবিআইয়ের একটি দল সিলেটের বন্দর বাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে মারা যাওয়া রায়হান আহমদের মৃত্যুতে হওয়া হত্যা মামলার তদন্তে বন্দর বাজার পুলিশ ফাঁড়িতে প্রবেশ করেন।

গতকাল মঙ্গলবার সকালে রায়হান আহমদের মারা যাওয়া ঘটনায় হওয়া মামলা পিবিআইতে স্থানান্তরের নির্দেশ দেয় পুলিশ সদর দপ্তর। পরে এদিন রাতেই মামলার নথি আনুষ্ঠানিকভাবে পিবিআইতে হস্তান্তর মহানগর পুলিশ।

উল্লেখ্য, গত ১১ অক্টোবর (রোববার) ভোরে রায়হান আহমদ (৩৩) নামে সিলেট নগরের আখালিয়ার এক যুবক নিহত হন। পুলিশের পক্ষ থেকে প্রথমে প্রচার করা হয়, ছিনতাইয়ের দায়ে নগরের কাষ্টঘর এলাকায় গণপিটুনিতে নিহত হন রায়হান। পরিবার দাবি করেন সিলেট মহানগর পুলিশের বন্দর বাজার ফাঁড়িতে পুলিশের নির্যাতনে প্রাণ হারান রায়হান।

একইদিন রাত আড়াইটার দিকে পুলিশকে অভিযুক্ত করে সিলেটের কোতোয়ালি থানায় আসামিদের অজ্ঞাত রেখে মামলা করেন নিহতের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নি।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img