মঙ্গলবার, মে ২৪, ২০২২

রাশিয়ার কাছ থেকে উসমানী খেলাফতের পতাকা ফিরিয়ে আনতে আইনি লড়াই

১৯১৬ সালে প্রথম বিশ্বযুদ্ধে রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর আগ্রাসনের সময় তুরস্কের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ এরজুরুমে রুশ বাহিনীর ছিনিয়ে নেওয়া তৎকালীন খেলাফতে উসমানিয়ার ১০টি সামরিক পতাকা ফেরত আনতে তুরস্কের আদালতে আবেদন করেছেন দেশটির লেখক ও ইতিহাসবিদ উমিদ তোপাল।

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) তুরস্কের আদালতে রাশিয়া থেকে পতাকাগুলো ফেরত আনার জন্য আবেদন করেন তুর্কি এই নাগরিক।

আবেদনের আর্জিতে বলা হয়, ১৯১৬ সালে রুশ বাহিনীর কাছে হারানো এই পতাকাগুলো তুর্কি জাতির সম্মানের প্রতিনিধিত্ব করে এবং তা অবশ্যই ফিরিয়ে আনতে হবে।

এ বিষয়ে তুরস্কের বার্তা সংস্থা দেমিরোরেন নিউজ এজেন্সির সাথে সাক্ষাতকালে তোপাল বলেন, এরজুরুমের আজিজিয়ে দুর্গ থেকে পতাকাগুলো রুশ বাহিনী জব্দ করে। বর্তমানে রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গের হার্মিটেজ জাদুঘরে পতাকাগুলো সংরক্ষিত রয়েছে। পতাকার সাথে সাথে এরজুরুম শহরের ক্লক টাওয়ারের ঘড়ি, দুর্গের দরজা, ব্যবহার্য বস্তু ও পুস্তক নিয়ে যাওয়া হয়, যা পরে রাশিয়ার লাইব্রেরিগুলোতে রাখা হয়। এসময় পতাকা হারানোকে বেশি বেদনাদায়ক বলে দুঃখপ্রকাশ করেন তিনি।

এছাড়া এই ইতিহাসবিদ পতাকাগুলো ফিরিয়ে আনতে তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও প্রাদেশিক সরকারের ঐতিহাসিক তথ্য সংরক্ষণ দপ্তরে সংশ্লিষ্ট তথ্যপ্রমাণ জমা দিয়েছেন বলে সাক্ষাতকারে জানান।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধে তৎকালীন খেলাফতে উসমানিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় এরজুরুম প্রদেশে ১৯১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে হামলা করে রাশিয়ান বাহিনী। রক্তক্ষয়ী এক যুদ্ধের পর রুশ বাহিনী এরজুরুম দখল করে নেয়। এই যুদ্ধে উসমানিয়া সেনাবাহিনীর প্রায় ১০ হাজার সৈন্য নিহত হয়।

যুদ্ধের পর রুশ বাহিনী বিজয়ের স্মারকস্বরূপ উসমানিয়া সেনাবাহিনীর ১০টি সামরিক পতাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তবে দুই বছর পরই আবার এরজুরুম রুশ দখলমুক্ত হয়ে তুরস্কের সাথে যুক্ত হয়।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img