সোমবার, অক্টোবর ১৮, ২০২১

গাজার সঙ্ঘাতে যুদ্ধাপরাধ হয়েছে: হিউম্যান রাইট ওয়াচ

গত মে মাসে গাজা সঙ্ঘাতের সময় ইহুদিবাদী সন্ত্রাসীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের সামরিক বাহিনী এবং ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ গ্রুপ যে পাল্টাপাল্টি হামলা চালিয়েছে তার মাধ্যমে যুদ্ধাপরাধ সংঘঠিত হয়েছে বলে জানিয়েছে মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ।

এক তদন্তের পর মানবাধিকার সংস্থাটি বলছে যে ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর তিনটি বিমান হামলায় যে ৬২ জন বেসামরিক নাগরিকের প্রাণহানি হয়েছে তার আশপাশে কোথাও সামরিক লক্ষ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে যে ফিলিস্তিনিরা ইসরাইলকে লক্ষ্য করেও ৪,৩০০টি রকেট ছুঁড়েছে যা বেসামরিক নাগরিকদের উপর নির্বিচার হামলাতেই পরিণত হয়েছে।

১। বেইত হানুন, ১০ মে :
প্রতিবেদনে বলা হয়, ইসরাইলের ছোঁড়া একটি ক্ষেপণাস্ত্র চারটি বাড়ির কাছাকাছি গিয়ে পড়লে সেখানে আটজন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়। ইসরাইলি সেনাবাহিনী বলছে যে ফিলিস্তিনি একটি রকেটের কারণে ওই বিস্ফোরণ হয়েছিল।

২। শাতি শরণার্থী শিবির, ১৫ মে :
প্রতিবেদনে বলা হয়, একটি বোমা একটি তিন তলা ভবনে আঘাত হানলে তা ধ্বংস হয়ে যায় এবং ১০ জন বেসামরিক লোক নিহত হয়।

৩। গাজা সিটি, ১৬ মে :
প্রতিবেদনে বলা হয়, আল-ওয়াহদা স্ট্রিটের কাছে সিরিজ বিমান হামলায় তিনটি বহুতল ভবন ধ্বংস করা হয়। এতে অন্তত ৪৪ বেসামরিক মানুষ নিহত হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তিনটি ঘটনাস্থলের কোনটির আশেপাশেই স্পষ্টত কোনো সামরিক লক্ষ্যবস্তু ছিল না’ এবং ‘যে হামলা নির্দিষ্ট কোনো সামরিক লক্ষ্যবস্তুকে উদ্দেশ্য করে করা হয় না তা বেআইনি।

সূত্র : বিবিসি

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img