মঙ্গলবার, অক্টোবর ২৬, ২০২১

পিরোজপুরে নিখোঁজের ৪ মাস পর কিশোরী উদ্ধার, আ.লীগ নেতা গ্রেপ্তার

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে নিখোঁজের প্রায় ৪ মাস পর এক কিশোরীকে (১৬) উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা দায়েরের পর জিল্লুর রহমান ওরফে শান্তি জোমাদ্দার (৫২) নামে স্থানীয় আওয়ামী লীগের এক নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার (২৫ আগস্ট) নিজ বাড়ি থেকে শান্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তিনি উপজেলার চরনী পত্তাশী গ্রামের মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে এবং ২নং পত্তাশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি।

জানা গেছে, উদ্ধারকৃত কিশোরীর বাড়ির পাশে শান্তির একটি মাছের ঘের রয়েছে। সেই সূত্রে মাছের ঘেরে যাওয়ার পর প্রায়ই ওই কিশোরীকে বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করার পাশাপাশি তাকে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়াসহ বিভিন্ন ধরণের প্রলোভন দেখাত শান্তি। পরে বাধ্য হয়ে শান্তির ভয়ে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগেই ওই কিশোরীকে বিয়ে দিয়ে দেয় তার পরিবার। এতে মারাত্মক ক্ষিপ্ত হয় শান্তি।

বিয়ের কিছুদিন পর বাবার বাড়ি থেকে একা শশুর বাড়িতে যাওয়ার সময় বিভিন্ন ধরণের ভয়ভীতি দেখিয়ে অন্য এক যুবকের সহায়তায় গত ১৬ এপ্রিল ওই কিশোরীকে মোটরসাইকেলে করে পার্শ্ববতী বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জ উপজেলায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে তুলে নিয়ে যায় শান্তি। এরপর সেখানে বিয়ের নাটক করে ওই কিশোরীর সাথে কিছুদিন সেখানে অবস্থান করে সে। পরবর্তীতে সে এক নারীর সাথে তাকে চট্টগ্রামে পাঠিয়ে দেয়। তখন থেকেই ওই কিশোরীর কোন খোঁজ ছিল না। পরবর্তীতে ওই কিশোরীর বাবা গত ১৩ আগস্ট ইন্দুরকানী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করার পর পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ওই কিশোরীকে চট্টগ্রাম থেকে উদ্ধার করে মঙ্গলবার ইন্দুরকানী থানায় নিয়ে আসে।

ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির জানান, ভূক্তভোগী কিশোরীর বাবা থানায় জিডি করার পর পুলিশ ওই কিশোরীকে উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় তার বাবা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়েরের পর একমাত্র অভিযুক্ত শান্তিকে দুপুরে পিরোজপুরের আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালত শান্তির জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img