বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২৭, ২০২২

ফটিকছড়িতে মাদরাসায় হামলা ও কচুয়ায় শিক্ষক নির্যাতনের ঘটনায় হেফাজত মহাসচিবের প্রতিবাদ

চট্টগ্রাম ফটিকছড়িতে নানুপুর দারুচ্ছালাম ঈদগাহ মাদরাসার নির্মাণকে কেন্দ্র করে ভাংচুর ও তৌহীদি জনতার উপর গুলিবর্ষণ ও চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার তালিমুল কোরআন ওয়াল হিকমাহ মাদরাসার হিফজ বিভাগের শিক্ষক হাফেজ মুহাম্মদ ওমর ফারুককে মারধর এবং মাদরাসা ভাংচুরের ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আল্লামা নুরুল ইসলাম জেহাদী।

আজ মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) এক বিবৃতিতে আল্লামা জেহাদী বলেন, একদল সন্ত্রাসী চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির মাইজভান্ডারস্থ মান্নানীয়ার পশ্চিমে নানুপুর দারুচ্ছালাম ঈদগাহ মাদরাসার নির্মাণকে কেন্দ্র করে ভাংচুর ও তৌহিদি জনতার উপর গুলিবর্ষণের ঘটনা দেশের ইসলাম প্রিয় জনগণকে ক্ষুব্ধ করেছে। সন্ত্রাসীরা কোন সাহসে দিন-দুপুরে নির্মাণাধীন মাদরাসায় হামলা চালায় তা বোধগম্য নয়। আমরা প্রশাসনকে দ্রুত হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। ফটিকছড়িতে অসংখ্য দ্বীনি মাদারিস রয়েছে। দেশের শীর্ষ কওমী মাদরাসার বেশ কয়েকটি ফটিকছড়িতে অবস্থিত। তাই প্রশাসনকে তড়িৎ গতিতে সিদ্ধান্ত নিয়ে হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করতে হবে। অন্যথায় পরিস্থিতি ঘোলাটে হলে এর দায়ভার প্রশাসনকেই নিতে হবে।

চাঁদপুরে অপবাদ দিয়ে মাদরাসা শিক্ষককে নির্যাতন ও মাদরাসা-মসজিদ ভাঙচুরের ঘটনায় হেফাজত মহাসচিব বলেন, চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার তালিমুল কোরআন ওয়াল হিকমাহ মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ ওমর ফারুককে যেভাবে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে নির্যাতন করা হয়েছে এবং মাদরাসায় হামলা চালানো হয়েছে, তাতে আবারো স্পষ্ট প্রমানিত হয়েছে যে, ইসলাম বিদ্বেষী ও মাদরাসা মসজিদ বিদ্বেষীরা কিভাবে ঘাপটি মেরে সমাজের রন্দ্রে রন্দ্রে বসে আছে। তারা ভিত্তিহীন অপবাদ দিয়ে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংসের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আলেম-উলামাদের ওপর আক্রমণ করছে। আমরা স্পষ্ট বলে দিতে চাই, এধরণের ইসলাম বিদ্বেষী গোষ্ঠীকে কোনরকম ছাড় দেওয়া হবে না। যারা অপবাদ দিয়ে মাদরাসা-মসজিদে হামলা চালিয়েছে, শিক্ষককে লাঞ্ছিত করেছে, তাদের সকলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

তিনি বলেন, এসব ঘটনাকে বিচ্ছিন্নভাবে দেখার সুযোগ নেই। এগুলো ইসলাম ও দেশ বিরোধী গোষ্ঠীর গভীর চক্রান্তের অংশ। সরকার, বিশেষ করে স্থানীয় প্রশাসনের উচিত তড়িৎ গতিতে অপরাধীদের গ্রেপ্তার করা।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img