রবিবার, আগস্ট ১, ২০২১

ধর্ষণ রোধে পুরুষত্বহীন হ্রাসকরণ আইনের প্রাথমিক অনুমোদন পাকিস্তানে

ইনসাফ | নাহিয়ান হাসান


ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্তদের পুরুষত্বহীন হ্রাসকরণ কঠোর শাস্তি প্রদানের প্রস্তাবনায় অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তান কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রিসভা।

মঙ্গলবার ( ২৪ নভেম্বর) ইমরান খানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রীসভায় এই অনুমোদন দেওয়া হয়।

এছাড়াও পাক প্রধান ইমরান খান ওই বৈঠকে পুরুষত্বহীন হ্রাসকরণ সম্পর্কিত কাস্ট্রেশন আইন কার্যকরের জন্যেও প্রাথমিক অনুমোদন দিয়ে দিয়েছেন বলে জানায় পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমগুলো।

সংবাদমাধ্যমগুলোতে বলা হয়, ইমরান খান বলেন, জনগণকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য স্বচ্ছ ও সুস্পষ্ট আইন থাকা জরুরী। আর এর প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে আমরা কাস্ট্রেশন (যৌন ক্ষমতা হ্রাসকরণ) আইন কার্যকর করার সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছি।

এব্যাপারে তিনি আরো বলেন, ধর্ষণ মামলায় আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে কালক্ষেপণ করাকে বরদাশত করা হবে না বরং, যথাসময়ে কাস্ট্রেশন আইনটির কঠোর প্রয়োগ নিশ্চিত করা হবে। তাছাড়া, কোনো ভয় এবং শঙ্কা ছাড়াই ক্ষতিগ্রস্থ মহিলা বা শিশুরা যাতে তাদের অভিযোগ দায়ের করতে পারে সেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এমনকি এক্ষেত্রে তাদের পরিচয় বা গোপনীয়তা রক্ষার প্রতি বিশেষভাবে লক্ষ্য রাখা হবে।

তাছাড়া, অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে ধর্ষকদের কঠোর শাস্তি প্রদানের প্রস্তাবনায় অনুমোদন দেওয়ার পাশাপাশি ফাঁসিকে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি হিসেবে কার্যকর করার প্রস্তাবনাও পেশ করেন কয়েকজন মন্ত্রী।

তারা বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্তদের জনসম্মুখে ফাঁসির কাষ্ঠে ঝুলিয়ে শাস্তি দেওয়া দরকার।

অপরদিকে বৈঠকে ধর্ষণ আইন ‘রেপ ল অর্ডিনেন্সের চূড়ান্ত খসড়া তৈরি হয়ে গিয়েছে বলে মন্ত্রীসভাকে জানিয়েছে এই সম্পর্কিত গঠিত কমিটি।

ধর্ষণ আইন প্রণয়ন কমিটির তথ্যমতে, মহিলা পুলিশিং, দ্রুত মুকাদ্দামা পরিচালনা ও নিষ্পত্তি করণ এবং সাক্ষীদের গোপনীয়তা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করণ হল এই আইনের মূল অংশ।

সূত্র: জিও নিউজ।

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ