শনিবার, জুলাই ২৪, ২০২১

ভারতে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করে কেটে নেওয়া হয়েছে নানা অঙ্গ

সাত বছরের নাবালিকার উপর নারকীয় অত্যাচারের ঘটনা ঘটেছে ভারতের কানপুরে। ধর্ষণ করে খুন করার পর কেটে নেওয়া হয়েছে যকৃৎ-সহ আরও বেশ কয়েকটি অঙ্গ। হাথরাসের পর এবার কানপুরে ঘটল এই ভয়ঙ্কর ঘটনা।

উত্তরপ্রদেশের কানপুরে ৭ বছরের এক নাবালিকার বিকৃত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশের সন্দেহ, প্রথমে ওই নাবালিকাকে ধর্ষণ করা হয়, তারপর খুন করে নৃশংস কাণ্ড ঘটানো হয়।

পুলিশের তথ্যমতে, ওই নাবালিকার গ্রামের সন্তানহীন এক দম্পতি এক হাজার টাকা দিয়েছিল তাদেরই প্রতিবেশী দু’জনকে। সন্তান লাভের আশায় ওই দম্পতি কালাজাদু করতে চেয়েছিল। সেই পরিকল্পনারই অংশ পুরো ঘটনা।

অভিযুক্ত দু’জন শনিবার রাতে ওই নাবালিকাকে অপহরণ করে। নাবালিকাকে ধর্ষণ করা হয় বলেও অভিযোগ। তারপর তারা খুন করে। মৃত্যু নিশ্চিত করার পর নাবালিকার দেহ থেকে যকৃৎ-সহ কয়েকটি অঙ্গ কেটে নিয়ে যায়। রবিবার সকালে দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মনে করা হচ্ছে, কালাজাদু করার জন্যই এমন নৃশংস কাজ করা হয়েছে।

চার সন্দেহভাজনকে এরইমধ্যে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। কতৃপক্ষ জানিয়েছে, একাধিক দলে বিভক্ত হয়ে তদন্তকারীরা কাজ চালাচ্ছেন। ওই নাবালিকার প্রতিবেশী, অঙ্কুল ও বীরেনকে সন্দেহর কারণে পুলিশ আটক করেছে। তারা জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, পরশুরাম নামে এক ব্যক্তি এই গোটা ঘটনা ঘটানোর জন্য তাদের টাকা দিয়েছিল।

spot_imgspot_img

আরও