বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০২২

আগামীকাল থেকে চলবে বাস, ট্রেন ও লঞ্চ

মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারের দেয়া বিধিনিষেধ সিথিল করা হয়েছে। চলমান এ বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে ২৪ মে থেকে ৩০ মে পর্যন্ত। তবে এবার বিধিনিষেধের মধ্যেও চলবে আন্তঃজেলা ট্রেন, লঞ্চ ও বাস।

সব ধরণের গণপরিবহন চলাচলের অনুমতি দিলেও মানতে হবে সরকারের দেয়া নির্দেশনা। গণপরিবহনগুলোয় অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের সাপেক্ষে চলাচলের অনুমতি দেয়া হলেও যাত্রীদের মানতে হবে নির্দেশনা।

এজন্য শর্ত দিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। রোববার (২৩ মে) জারি করা এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আন্তঃজেলাসহ সব গণপরিবহন অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করতে পারবে। তবে অবশ্যই যাত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে মাস্ক পরিধানসহ সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এছাড়া হোটেল ও রেস্তোরাঁতেও সীমিত পরিসরে বসে খাওয়া যাবে।

এর আগে বিধিনিষেধে একই জেলার মধ্যে গণপরিবহন চলেছে। তবে এক জেলা থেকে আরেক জেলায় গণপরিবহন বন্ধ ছিল। এছাড়া যাত্রীবাহী নৌযান ও ট্রেনও আগের মতো বন্ধ আছে। তবে ঈদের আগে লকডাউনের মধ্যে দোকান ও শপিং মল খুলে দেওয়া হয়েছে। খোলা আছে ব্যাংকও।

কোভিড-১৯ সংক্রমণ আর মৃত্যুর ঊর্ধ্বগতি রুখতে সারাদেশে গত ৫ এপ্রিল থেকে শুরু হয় সাত দিনের লকডাউন। লকডাউন শেষে দুদিন বিরতির পর গত ১৪ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে আট দিনের কঠোর লকডাউন শুরু হয়।

সেই মেয়াদ শেষ হয় গত ২১ এপ্রিল মধ্যরাতে। তবে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় লকডাউনের মেয়াদ ২৮ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত বাড়ানো হয়। পরে লকডাউন বাড়ানো হয় ৫ মে পর্যন্ত।

এরপর গত ৩ মে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে আবারও লকডাউন বাড়িয়ে আগামী ১৬ মে পর্যন্ত বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

spot_img
spot_img

সর্বশেষ

spot_img