বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১

একনায়ক না হওয়ায় প্রতিশ্রুতি দিলেন অবৈধভাবে ক্ষমতা কুক্ষিগত করা কায়েস সাইদ

তিউনিসিয়ার প্রেসিডেন্ট কায়েস সাইদ বলেছেন, তিনি নিজেকে একনায়কে পরিণত করবেন না। শুক্রবার তিউনিসিয়ার প্রেসিডেন্টের দফতর থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এই প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। যদিও তিনি অবৈধভাবে সরকার ও সংসদকে বরখাস্ত করে সকল ক্ষমতা কুক্ষিগত করে নিয়েছেন।

এদিকে তিউনিসিয়ায় অভ্যুত্থান করার দায়ে প্রেসিডেন্ট সাইদের সমালোচনকারী দুই পার্লামেন্ট সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রেসিডেন্টের দফতর থেকে প্রকাশিত বিবৃতিতে কায়েস সাইদ বলেন, ‘সংবিধানের পাঠ সম্পর্কে আমি ভালোভাবেই অবহিত, তা সম্মান করি ও শিক্ষা দেই। সর্বোপরি আমি নিজেকে একনায়কে পরিণত করবো না, যা কেউ কেউ বলছেন।’

গত রোববার প্রেসিডেন্ট কায়েস সাইদের একক ক্ষমতা দখলের পদক্ষেপের পর বিশেষজ্ঞরা তাকে তিউনিসিয়ায় গণতন্ত্রের পথ ব্ন্ধ করে দিয়ে একনায়কত্ব প্রতিষ্ঠার পথ তৈরি করার বিষয়ে অভিযুক্ত করছেন।

এদিকে শুক্রবার প্রেসিডেন্টের সাইদের সমালোচক দুই পার্লামেন্ট সদস্যকে গ্রেফতার করেছে তিউনিসিয়ার পুলিশ। পার্লামেন্ট সদস্যদের বিচার থেকে অব্যাহতি বিষয়ক ধারা প্রেসিডেন্ট সাইদের তুলে দেয়ার পর প্রথম পার্লামেন্টের স্বতন্ত্র সদস্য ও দেশটির প্রভাবশালী ব্লগার ইয়াসিন আইয়ারি ও রক্ষণশীল কারমা দলের মাহের জায়েদকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তাদের আইনজীবীরা।

অপরদিকে বিচার বিভাগ জানিয়েছে তারা দেশটির রাজনৈতিক দল আননাহদার সাথে যুক্ত চার ব্যক্তির বিরুদ্ধে ‘সহিংসতা সৃষ্টির চেষ্টার’ অভিযোগে তদন্ত শুরু করতে যাচ্ছে।

এর আগে ২৫ জুলাই রাতে প্রেসিডেন্ট কায়েস সাইদ দুই বছর আগে নির্বাচিত পার্লামেন্ট ৩০ দিনের জন্য স্থগিত, প্রধানমন্ত্রী হিশাম মাশিশিকে বরখাস্ত ও নিজের হাতে নির্বাহী ক্ষমতা নেয়ার ঘোষণা দিয়ে আদেশ জারি করেন।

তিউনিসিয়ার রাজনৈতিক দলগুলো এই আদেশকে ‘সাংবিধানিক অভ্যুত্থান’ বলে অভিযোগ করছে।

প্রেসিডেন্টের আদেশের জেরে ২৬ জুলাই দেশটির বৃহত্তম রাজনৈতিক দল আননাহদার প্রধান ও পার্লামেন্ট স্পিকার রশিদ আল গানুশিসহ দলীয় পার্লামেন্ট সদস্য ও সমর্থকরা রাজধানী তিউনিসে পার্লামেন্টের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করে। অপরদিকে প্রেসিডেন্ট কায়েস সাইদের সমর্থকরাও পার্লামেন্টের সামনে জড়ো হয়। এই সময় দুই পক্ষের মধ্যে পরস্পরের প্রতি পাথর নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে।

অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে ২৭ আগস্ট পর্যন্ত রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করেন প্রেসিডেন্ট কায়েস সাইদ। একইসাথে তিনজনের বেশি লোককে প্রকাশ্যে জমায়েত হওয়ায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেন তিনি।

সূত্র : আলজাজিরা

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img