রবিবার, আগস্ট ১, ২০২১

সভা-সমাবেশে বিধি-নিষেধ জনগণের মৌলিক অধিকার হরণের সামিল : বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমীর মাওলানা ইসমাঈল নূরপুরী বলেছেন, ঢাকা মহানগরীতে পূর্বানুমতি ছাড়া সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করার নাটকীয়তার মধ্য দিয়ে সরকার নিজেদের অস্তিত্বহীনতার পরিচয় দিচ্ছে। সরকারের তলানীতে ফুটো হয়ে গেছে তাই সরকার জনগণের মৌলিক অধিকার হরণ করছে। সভা-সমাবেশ, ঘরোয়া মিটিং, ওয়াজ-মাহফিল নিষিদ্ধ বা বিধি নিষেধ আরোপ করে সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারবে না। ওয়াজ-মাহফিলে শব্দ দূষণ হয় বলে প্রচার করে বেড়ানো হচ্ছে অথচ গান-বাঝনার আওয়াজে এরচেয়ে বেশি শব্দ দূষণ হচ্ছে। উলামায়ে কেরামের মাহফিলে বাঁধা প্রদান করে ধর্মপ্রাণ মানুষের হৃদয়ে আঘাত করছে সরকার, যা কভুও কাম্য নয়।

তিনি আরও বলেন, হাসানুল হক ইনুদের মত উচ্ছিষ্টভোগীরা সরকারের মন্ত্রীত্ব না পেয়ে দিশেহারা হয়েগেছে। নির্বাচনের আগে হজ্জ করে, টুপি লাগিয়ে ধর্মকে নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করেছে। এখন আবার ইসলাম, মুসলমান এবং উলামায়ে কেরামদের নিয়ে বিষেদগার করছে। অবিলম্বে তাদের লাগাম টেনে ধরতে হবে। এসকল রাজনৈতিক সুবিধাভোগীদের কাজই হলো এদিক সেদিক বলে সুবিধা ভোগ করা। ভাস্কর্য বিষয়ে সরকারকে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। উলামায়ে কেরামের দায়িত্ব সতর্ক করা সতর্ক না হলে সরকারকেই খেসারত দিতে হবে। মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নাম ধারণ করে দেশে ফাটল ধরানোর পাঁয়তারা করা হচ্ছে। দেশব্যাপী সৃষ্ট বিশৃংখল পরিস্থিতিরি দায়ভার সরকারকেই গ্রহণ করতে হবে।

ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের পরিচালনায় নির্বাহীতে উপস্থিত ছিলেন, নায়েবে আমীর মাওলানা রেজাউল করীম জালালী, মাওলানা খুরশিদ আলম কাসেমী, মাওলানা আলী উসমান, সংগঠনের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ, মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন, মাওলানা কোরবান আলী কাসেমী, মাওলানা আব্দুল আজীজ, মুফতী শরাফত হোসাইন, অফিস ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলনা আজিজুর রহমান হেলাল, বায়তুলমাল সম্পাদক মাওলানা মাহবুবুল হক, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওলানা মুহসিনুল হাসান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা হারুনুর রশীদ ভূঁইয়া, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য মাওলানা ইউসুফ আশরাফ, মাওলানা জসিম উদ্দীন, মুহাম্মদ আব্দুর রহীম, মাস্টার আনোয়ার আলী, মহানগর সভাপতি মাওলানা রুহুল আমীন খান, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল মুমিন প্রমূখ।

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ